তাড়াশের শাহী মসজিদ মুসলিম স্থাপত্যের নির্দশন বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে ৩ দিন ব্যাপী ওরস সমাগম হবে কয়েক লাখ মানুষের
১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৬:১৮ পূর্বাহ্ন


  

   সর্বশেষ সংবাদঃ

  • তাড়াশ/ অন্যান্য:

    তাড়াশের শাহী মসজিদ মুসলিম স্থাপত্যের নির্দশন বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে ৩ দিন ব্যাপী ওরস সমাগম হবে কয়েক লাখ মানুষের
    ১৪ মার্চ, ২০১৭ ০৯:৩১ অপরাহ্ন প্রকাশিত

     এম এ মাজিদ:
    চলনবিলের প্রাণকেদ্রে সিরাজগঞ্জে তাড়াশ উপজেলার নঁওগা ইউনিয়নের নঁওগা গ্রামের ঐতিহাসিক শাহী মসজিদটি মুসলিম স্থাপত্বের নির্দশন স্বরুপ আজো দাঁড়িয়ে আছে। শাহেন শাহ হযরত শাহ শরীফ জিন্দানী (র:)এর মাজার সংলগ্ন এ মসজিদটি তার নামের স্মৃতি বহন করে চলছে। এ মাজার মসজিদ ঘিরে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শরু হচ্ছে ৩ দিন ব্যাপী ওরস। ওরসে সমাগম ঘটবে দেশ-বিদেশের কয়েক লাখ মানুষের। ওরস থেকে সরকারের রাজস্ব আদায় হবে প্রায় অর্ধ কোটি টাকা। ইতিহাস থেকে জানা যায়, ৯শ ৩২ হিজরীতে রাজা গৌড় অধিপতি নাসির উদ্দিন নসরত শাহের শাসনামলে নির্মিত তাড়াশ উপজেলা সদর থেকে ১০ কিলোমিটার দক্ষিনে নঁওগার এই শাহী মসজিদ মুসলিম স্থাপত্যের নির্মাণ শৈলীর এক অপূর্ব নির্দশন। এই মসজিদের নির্মাতাদের নিয়ে রযেছে নানা কিংবদন্তী। রাধা রমনশাহ লিখিত বৃহত্তর পাবনা জেলার ইতিহাস গ্রন্থ থেকে জানা যায়, বাগদাদের জিন্দান শহর থেকে ষোড়শ শতাব্দীতে হযরত শাহ শরীফ জিন্দানী (র:) এ দেশে আসেন মূলত ইসলাম প্রচার করতে। প্রবাদ আছে বাঘের পিঠে করে এসেছিলেন এবং যে স্থানে তিনি পৌঁছেন তা ছিল মানসিংহের ভ্রাতা রাজা ভানু সিংহের বিশাল বাড়ির সীমানা। তার আগমনে কিছু অলৌখিক ঘটনাও ঘটেছিল।যা দেখে  অনেকেই ইসলাম গ্রহন করেছিলেন। তাছাড়া মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় পলাশ ডাঙ্গা যুবশিবির নামে মুক্তি যোদ্ধাদের নিয়ে গঠিত সংগঠনের যোদ্ধারা এই মাজার মসজিদে আশ্রয় নিয়ে যুদ্ধের রণ-কৌশল ঠিক করে পাক-বাহীনির মোকাবেলা করত। কথিত আছে সে সময় ওলীর মাজার মসজিদের বরকতে একজন মুক্তিযোদ্ধাও নিহত হননি পক্ষান্তরে কয়েক’শ পাক-সেনা মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে নিহত হয়েছিল। তাড়াশের নঁওগার শাহী মসজিদটি রাজশাহীর কুসুম্বা মসজিদের গঠন ও কারুকার্যের অনুরুপ। শিল্প সৌন্দর্য মন্ডিত মসজিদটির মাঝখানে রয়েছে একটি গুম্বুজ মসজিদের চারকোনায় আছে আরো চারটি গুম্বুজ। প্রধান গুম্বুজের উচ্চতা প্রায় ২৬ ফুট। মসজিদটির দৈর্ঘ্য ৫০ ফুট প্রস্থ ৩৩ ফুট।বারান্দ দুটি কালো পাথর দিয়ে নির্মিত। প্রাচিনকালের ছোট ছোট ইট দিয়ে নির্মিত মসজিদের দেয়ালটি ৯ ফুট পুরু। দক্ষিনের প্রবেশ দ্বারের সামনে লেখা আছে ৪ রজব,৯৩২ হিজরী। ইসলামের মহান সাধক হযরত শাহ শরীফ জিন্দানী (র:) এর মাজার জিয়ারত করতে প্রতিদিন হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ ভক্তরা নঁওগায় আসেন। ওলীকুল শিরোমনী দাদা পীর হযরত শাহ শরীফ  জিন্দানী (র) এর রুহের মাগফিরাতে এবং তার ¯ৃতি ধরে রাখতে প্রতি বছর চৈত্র মাসের প্রথম বৃহপতিবার হতে ৩ দিন ব্যাপী ওরস অনুষ্ঠিত হয়। ওরসে দেশ বিদেশের লাখো ভক্তদের সমাগম ঘটে। মাজার মসজিদে প্রবেশে দর্শনীয় একটি গেট নির্মান করা হয়েছে। ৯৩২ হিজরেিত নির্মিত শাহ শরীফ জিন্দানী (র) এর মাজার সংলগ্ন শাহী মসজিদটি অত্র চলনবির অঞ্চলের একটি অন্যতম ঐতিহাসিক নির্দশন। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও মাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান খাঁন বলেন,বর্তমানে মাজারে আগত ভক্তদের সুবিধার্থে জায়গা ক্রয় করা হয়েছে। মসজিদের মূল গুম্বুজটি সংস্কারের করা হবে সর্বোপরি মাজারের উন্নয়নে সরকারের পক্ষ্য থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সাথে সকলকে আগামী ওরসের আামন্ত্রন জানাচ্ছি।
    ১৪ মার্চ, ২০১৭ ০৯:৩১ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 457 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    তাড়াশ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7995135
    ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৬:১৮ পূর্বাহ্ন