সিরাজগঞ্জে শিক্ষার্থীদের মাঝে টাকার বিনিময়ে বিনামুল্যের পাঠ্য বই বিতরণ
১৮ জুলাই, ২০১৮ ০৫:০৩ অপরাহ্ন


  

  • সিরাজগঞ্জ/ অপরাধ:

    সিরাজগঞ্জে শিক্ষার্থীদের মাঝে টাকার বিনিময়ে বিনামুল্যের পাঠ্য বই বিতরণ
    ১০ জানুয়ারী, ২০১৮ ০৩:৫৭ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে টাকার বিনিময়ে বিনামুল্যের পাঠ্য বই বিতরণের অভিযোগ উঠেছে এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। স্কুল সুত্রমতে, শিশু শ্রেণীর ১৫জন শিক্ষার্থীর বিপরীতে ৪০ সেট বই বরাদ্দ, ১ম শ্রেণীর ২৩ জনের বিপরীতে ৩০ সেট, ২য় শ্রেণীর ২৫ জনের ৩০ সেট, ৩য় শ্রেণীর ২২ জনের ৩০ সেট, ৪র্থ শ্রেণীর ১৮ জনের ৩৫ সেট এবং ৫ম শ্রেণীর ২৭ জন শিক্ষার্থীর বিপরীতে ৩৫ সেট পাঠ্য বই বরাদ্দ হয়।  অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে জানা যায়, সরকারীভাবে বছরের প্রথম দিনেই শিক্ষার্থীদের বিনামুল্যের পাঠ্য বই বিতরণের কথা থাকলেও সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার বাহিরগোলার বীনাপানি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোছা. ইমিলি খাতুন শিশু শ্রেণী থেকে ৫ম শ্রেণীর প্রত্যেক কমলমতি শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে ৯০ থেকে ১০০ টাকা করে নিয়ে বিনামুল্যের পাঠ্য বই বিতরণ করেছেন।

     


    ৫ম শ্রেনীর জবা খাতুন, লাভলী খাতুন, ৪র্থ শ্রেণীর ঐশী খাতুন, গোলাম রাব্বী, ৩য় শ্রেণীর লামিয়া খাতুন, ১ম শ্রেণীর কলি খাতুনসহ অনেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা জানান, প্রত্যেক ছাত্র/ছাত্রীকেই বিনামুল্যের পাঠ্য বই নিতে ৯০ থেকে ১০০ টাকা দিতে হয়েছে। তারা আরও অভিযোগ করে বলেন, টাকা না দিলে পাঠ্য বই দেয়া হয়নি কাউকেই। অত্র স্কুলের সাবেক প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মো. মকবুল হোসেন বলেন, অভিভাবকদের নিকট মৌখিক অনুমতি নিয়ে পাঠ্যবই বিতরণের সময়ই শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে বার্ষিক খেলাধুলার জন্য ৯০ টাকা করে নেয়া হয়েছে।

     

     

    এ ব্যপারে প্রধান শিক্ষক ইমিলি খাতুন টাকা উত্তোলনের বিষয় স্বীকার করে বলেন, পাঠ্য বই পাওয়ার পর ছাত্র/ছাত্রীরা ঠিকমতো স্কুলে আসে না। তাই, ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্তমতে পাঠ্যবই বিতরণের সময় স্কুলের বার্ষিক খেলাধুলার জন্য শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে টাকা উত্তোলন করা হচ্ছে। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম খান বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। তবে, বিনামুল্যের পাঠবই বিতরণে টাকা নেয়া অত্যান্ত দুঃখজনক। এতে সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিদ্দীক মোহাম্মদ ইউসুফ রেজা বলেন, বিনামুল্যের পাঠ্যবই বিতরণে টাকা নেয়ার বিষয়টি খুবই ন্যাক্কার জনক ঘটনা। যদি এমন হয়, তাহলে অবশ্যই তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    ১০ জানুয়ারী, ২০১৮ ০৩:৫৭ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 296 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    সিরাজগঞ্জ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    6211974
    ১৮ জুলাই, ২০১৮ ০৫:০৩ অপরাহ্ন