শাহজাদপুরে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ সমাবেশ স্মারকলিপি পেশ
২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০৭:২৫ পূর্বাহ্ন


  

  • শাহজাদপুর/ অন্যান্য:

    শাহজাদপুরে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ সমাবেশ স্মারকলিপি পেশ
    ১১ জানুয়ারী, ২০১৮ ০৪:৩১ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    শামছুর রহমান শিশির: শাহজাদপুরে সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যা মামলার প্রধান আসামী পৌর মেয়র (বরখাস্তকৃত) হালিমুল হক মিরুর স্ত্রীর দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও শাহজাদপুর কোর্টের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতার অপব্যবহার বন্ধের দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার ছাত্রলীগ বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর স্মারকলিপি পেশ করা হয়েছে। শাহজাদপুর সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের উদ্যোগে এসব কর্মসূচি পালন করা হয়। এদিন দুপুর ১২ টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় থেকে শত শত ছাত্রলীগ নেতাকর্মী ও সমর্থকদের এক বিশাল মিছিল বের হয়ে পৌর এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে। মিছিল শেষে স্থানীয় প্রেস ক্লাবের সামনের প্রধান সড়কে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ইসলাম শেখ, ছাত্রলীগ নেতা রাজিবুল ইসলাম রাজিব, হুমায়ন আহমেদ প্রতিক, শেখ মোঃ রাসেল, নেছারুল হক, আকাশ মিয়া, সাইদুল ইসলাম প্রমুখ। বক্তারা সাংবাদিক শিমুল হত্যা মামলার প্রধান আসামী পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরুর স্ত্রী লুৎফুন নেছা পিয়ারীর দায়ের করা মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার এবং শাহজাদপুর কোর্টের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতার অপব্যবহার বন্ধ ও বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান। অন্যথায় আগামীতে হরতাল-অবরোধসহ কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে সমাবেশের বক্তারা জানান। জানা গেছে, গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে দৈনিক সমকাল পত্রিকার শাহজাদপুর প্রতিনিধি আব্দুল হাকিম শিমুল পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরুর শর্টগানের গুলিতে গুরুত্বর আহত হয়ে পরদিন মৃত্যুবরণ করে। এ ঘটনায় নিহত শিমুলের স্ত্রী নুরুন্নাহার খাতুন বাদী হয়ে মেয়র মিরুকে প্রধান আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে। তদন্ত শেষে পুলিশ মেয়র মিরুসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে। বর্তমানে ওই মামলাটি সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এদিকে, সাংবাদিক শিমুল হত্যার আড়াই মাস পর মেয়র মিরুর স্ত্রী লুৎফুন নেছা পিয়ারী বাদী হয়ে মেয়রের বাড়ীঘর ভাংচুর ও গুলিবর্ষনের অভিযোগ এনে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ১৭ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে থানা মামলা দায়ের করে। তদন্ত শেষে ওই মামলাটি মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন উল্লেখ করে সকল আসামীদের অব্যাহতি দিয়ে পুলিশ আদালতে চুড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করে। পরে চুড়ান্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে মিরুর স্ত্রী নারাজি দিয়ে মামলাটি বিচার বিভাগীয় তদন্তের আবেদন করলে আদালত তা গ্রহন করে জুডিশিয়াল তদন্তের আদেশ দেন। এক পর্যায়ে বিচারিক স্বাক্ষ্য শেষে শাহজাদপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. হাসিবুল হক আওয়ামী লীগের ১৯ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে দন্ড বিধির ধারায় সমন জারি করেন এবং সিরাজগঞ্জ বিশেষ ট্রাইব্যুনাল- ১ এর ভারপ্রাপ্ত বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. রফিকুল ইসলাম বিস্ফোরক আইনের ধারায় ওই ১৯ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। ছাত্রলীগ নেতারা অভিযোগ করে আরও বলেন,' সাংবাদিক শিমুল হত্যা মামলা ভিন্নখাতে প্রবাহের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে একটি বিশেষ মহলের চাপে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ১৯ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে একই মামলায় সমন জারি ও গ্রেফতারি পরোয়ানার আদেশ দিয়ে নানাভাবে হয়ারানি করা হচ্ছে।'
    ১১ জানুয়ারী, ২০১৮ ০৪:৩১ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 571 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    শাহজাদপুর অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7339636
    ২০ অক্টোবর, ২০১৮ ০৭:২৫ পূর্বাহ্ন