শাহজাদপুরে বজ্রপাতে নিহত পলিনের মায়ের কান্না আজও থামেনি!
১৯ জুলাই, ২০১৮ ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন


  

  • শাহজাদপুর/ দূর্ঘটনা:

    শাহজাদপুরে বজ্রপাতে নিহত পলিনের মায়ের কান্না আজও থামেনি!
    ১২ জুলাই, ২০১৮ ০৪:১২ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ  প্রবাদে আছে ' জননী জন্মভূমিশ্চ: স্বর্গাদপী গরিয়সী' অর্থাৎ 'জননী ও জন্মভূমি স্বর্গের চেয়েও দামী'। ঠিক তেমনি জগৎ জননীর কাছে তার গর্ভের সন্তান সবচেয়ে প্রিয় ভালোবাসার ধন। 


    চলতি বছরের ২৯ এপ্রিল রোববার দুপুরে শাহজাদপুরে অতর্কিত আঘাত হানা কালবৈশাখী চলাকালীন বজ্রপাতে গুরুতর আহত হয়ে করুণ মৃত্যূর কোলে ঢলে পড়েছিলো শাহজাদপুর পৌরসদরের ছয়আনীপাড়া মহল্লার মিষ্টান্ন ও কনফেকশনারি ব্যবসায়ী রাশিদুল হাসানের মেঝো ছেলে মেধাবী কলেজ ছাত্র, ছাত্রলীগ কর্মী পলিন (১৭)। ওই দিন মেধাবী কলেজ ছাত্র পলিনের  আরেক বন্ধু নাবিল এ দু'জন প্রতিভাবান যুবকের সলিল সমাধি ঘটায়  শোকে মূহ্যমান হয়ে পড়েছিলো নিহতদ্বয়ের আত্মীয় স্বজনসহ পুরো শাহজাদপুরবাসী। ঝর থেমেছিলো, বন্ধ হয়েছিলো বজ্রপাতও। দিন অতিবাহিত হবার সাথে সাথে শাহজাদপুরবাসীর শোক ও সহমর্মিতায়ও ভাটা পড়েছে। কিন্তু, বেদনাদায়ক ওই ঘটনার প্রায় ৭২ দিন অতিবাহিত হলেও আজও থামেনি সন্তানহারা নিহত পলিনের জন্যে তার মা  শাহানাজ পারভীনের করুন আর্তনাদ আর কান্না! 


    নিহত পলিনের বাবা, মা, আত্মীয় স্বজন, সহপাঠী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বজ্রপাতে নিহত কলেজ ছাত্র পলিন ছোটবেলা থেকেই মুজিবীয় আদর্শ বুকে ধারণ ও লালনপালন করে সক্রিয়ভাবে ছাত্রলীগ কর্মী হিসেবে ছাত্র রাজনীতির সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করেছিলো। বিভিন্ন সময়ে স্থানীয় দরিদ্র পরিবারের অসংখ্য ছাত্রছাত্রীদের যাদের পরিবারের পক্ষে স্কুল ও কলেজের বিভিন্ন বোর্ড পরীক্ষার ফি (ফরম ফিলাপ) পরিশোধ করা দূরহ ছিলো, সেসব অসহায় শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়ে ফি কমাতে অগ্রণী ভূমিক পালন করতো পলিন। বড় হয়ে ক্রিকেটার হবার ইচ্ছে ছিলো তার। সেইসাথে ক্রিকেটার হবার পাশাপাশি ইঞ্জিনিয়ার হবার স্বপ্নও দেখতো পলিন। বিশ্বপরিমন্ডলের অজানা জ্ঞান অর্জনের প্রতি ছিলো পলিনের তীব্র ঝোঁক। দিনের বেশিরভাগ সময়ে সে দামী মোবাইল ফোন ব্যবহার করতো ও ইন্টারনেট ব্যবহার করে আজানা জ্ঞান অর্জনের চেষ্টা করতো। এজন্য মাঝে মধ্যেই কড়া বকুনি খেতে হতো পলিনকে।


    সেই মেধাবী কলেজ ছাত্র, সক্রিয় ছাত্রলীগ কর্মী গত ২৯ এপ্রিল রোববার দুপুরে বজ্রপাতে নিহত হবার পর থেকে দু'চোঁখের অশ্রু একাকী অঝোরে ঝরিয়ে চলেছেন নিহত পলিনের মা শাহানাজ পারভীন। সন্তানহারা মায়ের কান্নায় আজও এলাকার আকাশ বাতাস শোকে ভারী হয়ে উঠছে।

    সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, শাহজাদপুর ১২ জুলাই, ২০১৮ ০৪:১২ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 60 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    শাহজাদপুর অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    6215965
    ১৯ জুলাই, ২০১৮ ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন