উল্লাপাড়ায় প্রাথমিক স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০৯:৫৮ অপরাহ্ন


  

  • উল্লাপাড়া/ অপরাধ:

    উল্লাপাড়ায় প্রাথমিক স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ
    ০৪ আগস্ট, ২০১৮ ১২:১৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের গোলকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিনের বিরুদ্ধে স্কুলের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে। উপজেলা শিক্ষা বিভাগ অভিযোগ তদন্ত করে ইতোমধ্যে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে ব্যবস্থা গ্রহণের চিঠি পাঠিয়েছেন। অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক বলছেন, তার বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগ মিথ্যে।

      
    গোলকপুর গ্রামের লোকজন অভিযোগ করেন, উক্ত প্রধান শিক্ষক গেল বছর এই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্লিপ কর্মসূচীর আওতায় বরাদ্দকৃত ৪০ হাজার, প্রাক প্রাথমিক শ্রেণির উপকরণ ক্রয়ের জন্য ৫ হাজার এবং স্কুলের ২টি গাছ বিক্রির মূল্য ৩০ হাজার টাকা মিলে মোট ৭৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন। স্লিপের জন্য বরাদ্দকৃত টাকা থেকে স্কুল অঙ্গনে একটি শহীদ মিনার নির্মাণের কথা থাকলেও তিনি তা নির্মাণ করেননি। কেনেননি কোন উপকরণ। কাউকে না জানিয়েই স্কুলের ২টি গাছ বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি তারা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানালে শিক্ষা অফিস থেকে এসব অভিযোগ তদন্ত করা হয়। পরবর্তীতে সিরাজগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকেও এ বিষয়ে তদন্ত করা হয়েছে। সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রেজওয়ান হোসেন এসব অভিযোগ তদন্ত করেন। গ্রামবাসীর আরো অভিযোগ স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ফেরদৌস সিদ্দিকী তার ছেলে এবং স্কুলের পাশেই তাদের বাড়ি। আব্দুল মতিন স্থানীয়ভাবে একজন প্রভাবশালীও। ফলে তিনি সময়মত স্কুলেও আসেন না। গ্রামবাসীর কোন অভিযোগ সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক কখনও আমলে নেন না। আর এ জন্য বিষয়টি তারা উপজেলা শিক্ষা অফিসকে জানিয়েছেন। 


    উল্লাপাড়া উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এম, জি, মাহমুদ ইজদানী জানান, গ্রামবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে তার দপ্তর থেকে  এবং সিরাজগঞ্জ জেলা প্রাথমিক অফিস থেকে করা কয়েক দফা তদন্তে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে ইতোমধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর রাজশাহী উপ-পরিচালকের কাছে উক্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশপত্র পাঠানো হয়েছে।  


    এ ব্যাপারে গোলকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিনের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগ মিথ্যা বলে উল্লেখ্য করেন। প্রধান শিক্ষক বলেন, তাকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যে স্থানীয় একটি মহল তার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে এসব ভূয়া অভিযোগ দাখিল করেছেন। তিনি কোন টাকা আত্মসাৎ করেননি। 


    এ বিষয়ে উক্ত স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতির সঙ্গে মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

    করেসপন্ডেন্ট, উল্লাপাড়া ০৪ আগস্ট, ২০১৮ ১২:১৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 217 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    উল্লাপাড়া অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    6934453
    ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০৯:৫৮ অপরাহ্ন