‘গ্রামীণ কৃষকের ভাগ্যবদল ও শিশুদের পুষ্টিহীনতা রোধে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের চেষ্টা করছি’ -চেয়ারম্যান মিল্কভিটা
১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৭:২৮ অপরাহ্ন


  

  • জাতীয়/ ব্যাবসা বানিজ্য:

    ‘গ্রামীণ কৃষকের ভাগ্যবদল ও শিশুদের পুষ্টিহীনতা রোধে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের চেষ্টা করছি’ -চেয়ারম্যান মিল্কভিটা
    ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:৩৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    স্টাফ রিপোর্টার : গতকাল শনিবার দুপুৃরে বাংলাদেশ দুগ্ধ উৎপাদনকারী সমবায় ইউনিয়ন লিমিটেড (মিল্কভিটা) এর শাহজাদপুর পূর্বাঞ্চল দুগ্ধ কারখানার নতুন ভবনের নির্মাণকাজ পরিদর্শন ও সমবায়ীদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শাহজাদপুর উপজেলার পুঠিয়াস্থ মিল্কভিটার পূর্বাঞ্চল দুগ্ধ কারখানা কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মিল্কভিটার চেয়ারমান শেখ নাদির হোসেন লিপু। মিল্কভিটার পরিচালক খালেকুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে ও জাহাঙ্গীর হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ওই মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মিল্কভিটার ভাইস চেয়ারম্যান ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা শেখ মোঃ আব্দুল হামিদ লাবলু, মিল্কভিটার পরিচালক আব্দুস সামাদ ফকির, উপজেলা যুবলীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক রাজীব শেখ প্রমূখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মিল্কভিটার চেয়ারম্যান শেখ নাদির হোসেন লিপু বলেন,‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চেয়েছিলেন, গ্রামীণ কৃষকেরা যাতে গাভী লালন পালন করে আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারেন এবং শিশুরা যাতে পুষ্টিকর দুধের অভাবে পুষ্টিহীনতায় না ভোগে সেই লক্ষ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মিল্কভিটা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। জাতির জনকের সেই লক্ষ্যপূরণে ও দেশের সকল শহর ও গ্রামাঞ্চলে মিল্কভিটার সব ধরনের দুগ্ধজাত সামগ্রী সরবরাহের লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’ অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি মিল্কভিটা'র ভাইস চেয়ারমান, স্থানীয় আ'লীগ নেতা এ্যাড. শেখ আব্দুল হামিদ লাবলু বলেন, 'ধারণক্ষমতা না থাকায় মিল্কভিটা'র আওতাভূক্ত শাহজাদপুর পূর্বাঞ্চলের প্রায় আড়াই'শ সমবায় গো-খামারে দৈনিক উৎপন্ন দুধের অর্ধেক এখানে ও বাকি অর্ধেক দুধ মিল্কভিটা'র বাঘাবাড়ী কারখানায় সংগ্রহ করা হতো। এ অঞ্চলের সমবায়ী ওইসব গো-খামারিদের দীর্ঘদিনের দাবীর প্রেক্ষিতে শাহজাদপুর পূর্বাঞ্চল দুগ্ধ সংগ্রহ কেন্দ্রে দৈনিক ১০ হাজার লিটার ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন নতুন শীতলীকরণ কেন্দ্র স্থাপনকাজ শুরু করা হলো। এটি চালু হলে স্থানীয় সমবায়ীরা স্বল্প সময়ে খুব সহজেই তাদের খামারে উৎপন্ন দুধের পুরোটাই এখানে সরবরাহ করতে পারবেন।" শেষে মিল্কভিটার চেয়ারম্যান প্রতি লিটার দুধে ২ টাকা সম্পূরক মূল্য বৃদ্ধির ঘোষণা দেন। উক্ত মতবিনিময় সভায় মিল্কভিটার কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ স্থানীয় সমবায়ী গো-খামারিরা উপস্থিত ছিলেন।
    সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, শাহজাদপুর ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:৩৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 179 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    জাতীয় অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7967930
    ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৭:২৮ অপরাহ্ন