সিরাজগঞ্জে ভুয়া সনদে চাকুরী নিয়ে ১৬বছর ধরে আ’লীগ নেতার বেতন-ভাতা উত্তোলন
১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০৬:১৩ পূর্বাহ্ন


  

  • সিরাজগঞ্জ/ অপরাধ:

    সিরাজগঞ্জে ভুয়া সনদে চাকুরী নিয়ে ১৬বছর ধরে আ’লীগ নেতার বেতন-ভাতা উত্তোলন
    ২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০৭:০৮ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    সোহাগ হাসান জয়ঃ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ১নং রতনকান্দি ইউনিয়নের বয়রা ভেন্নাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে কম্পিউটার শিক্ষক পদে ভুয়া সনদে চাকুরি নিয়ে আ’লীগের এক নেতা ১৬বছর ধরে অবৈধভাবে বেতনভাতা উত্তোলন করে আসছেন। এবিষয়ে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাবেক ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মো. নূরুল আমিন গং উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে তদন্তে এর সত্যতা রেরিয়ে আসে।

     
    জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয় ও অভিযোগকারীদের সূত্রে জানা যায়, ১নং রতনকান্দি ইউনিয়ন আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় প্রভাবশালী মো. রফিকুল ইসলাম বগুড়া নট্রামস থেকে ৬মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষনের ভুয়া সনদ নিয়ে ওই প্রতিষ্ঠানে ২০০২সালের ১সেপ্টেম্বর কম্পিউটার শিক্ষক হিসেবে চাকুরিতে যোগদান করে নিয়মিত বেতন-ভাতা উত্তোলন করে আসছিলেন (যার শিক্ষক ইনডেক্স নম্বর- ১০৩৪০৮১)।

     

    ১৬বছর ধরে ভুয়া সনদে চাকরি করার বিষয়টি ওপেন সিক্রেট হলেও সরকার দলীয় প্রভাবের কারণে তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছিলেন না। এরই একর্যায়ে ১৬ এপ্রিল ২০১৮ অত্র প্রতিষ্ঠানের সাবেক ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মো. নূরুল আমিন গং উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয় থেকে সনদ যাচাই-বাছাই করার জন্য চলতি বছরের ১১ সেপ্টেম্বর জাতীয় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও গবেষণা একাডেমী (নট্রামস) কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা মন্ত্রণালয় বগুড়া বরাবর একটি পত্র প্রেরণ করা হয়।

     

    নট্রামসের যাচাই-বাছাই কমিটির তদন্ত শেষে প্রতিষ্ঠানের পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) এসএম ফেরদৌস আলম ২৪ সেপ্টেম্বর সিরাজগঞ্জ জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয়ে পত্র প্রেরণ করেন। যাতে পত্রে উলে¬খ করা হয়েছে- ১নং স্মারক মোতাবেক রেজিস্টার যাচাইয়ে দেখা যায় যে, সনদ পত্রটি নট্রামস/নেকটার কর্তৃক ইস্যুকৃত নয়। সনদটি জাল/ভুয়া। 


    এ বিষয়ে বয়রা ভেন্নাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত সহকারি শিক্ষক (কম্পিউটার) রফিকুল ইসলাম বলেন, আমি ২০০১ সালে ৬মাসের প্রশিক্ষণ নিয়ে বগুড়া নট্রামস থেকে সনদ নিয়েছিলাম। ওই সনদেই আমার চাকুরী হয়। বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ(এনটিআরসিএ) কর্তৃক যাচাই বাছাইয়ের পরই আমাকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। একটি কুচক্রী মহল আমাকে হয়রানির করার জন্য এগুলো করে বেড়াচ্ছেন।  


    বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম বলেন, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা কর্তৃক প্রেরিত চিঠিতে সনদটি জাল বলে উলে¬খ করে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলেছেন। আগামী বৃহস্পতিবার ম্যানেজিং কমিটির সভা আহ্বান করা হয়েছে। সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এবিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি গাজী আকবর হোসেনের সাথে মোইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।  


    জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শফীউল্লাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে যুগান্তরকে বলেন, ওই কম্পিউটার শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি ও প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে। তারাই এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সিরাজগঞ্জ ২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০৭:০৮ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 311 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    সিরাজগঞ্জ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7670668
    ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০৬:১৩ পূর্বাহ্ন