কুড়িগ্রামে ইউপি চেয়ারম্যানের হামলায় সাংবাদিক আহত
১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ন


  

  • উত্তরবঙ্গ/ অন্যান্য:

    কুড়িগ্রামে ইউপি চেয়ারম্যানের হামলায় সাংবাদিক আহত
    ২৭ অক্টোবর, ২০১৮ ১০:০১ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত

    কথা কাটাকাটির জের ধরে কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার রাজারহাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের হামলা শিকার হয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘বাংলা.রিপোর্ট’-এর স্টাফ রিপোর্টার আল্লামা ইকবার অনিক। তিনি গত বৃহস্পতিবার ছুটিতে গ্রামের বাড়ি রাজারহাটের মেকুরটারীতে এসেছিলেন। তিনি ‘বাংলা.রিপোর্ট’ এর আগে মাছরাঙা টিভি ও বাংলামেইলে কাজ করেছেন।

     

    শুক্রবার দুপুরের দিকে রাজারহাট উপজেলা শহরের বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় রোডের একটি কফি হাউজে এ ঘটনা ঘটে। 

     

    এলাকাবাসী জানায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে সাংবাদিক আল্লামা ইকবার অনিকের পিতা আব্দুল আউয়াল ইউনিয়ন কাউন্সিল অফিসের সামন দিয়ে যাওয়ার সময় রাজারহাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এনামুল হকের দেখা হয়। এসময় তিনি চেয়ারম্যানকে কৃষি ভর্তুকির টাকার বিষয়ে জানতে চান। তখন চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়ালকে বলেন, কৃষি ভর্তুকির টাকা আপনার সাংবাদিক ছেলে আল্লামা ইকবার অনিক নিয়ে গেছে। পরে আব্দুল আউয়াল সেদিনই রাতে সাংবাদিক ছেলের কাছে টাকা নেয়ার বিষয়টি জানতে চান। এতে ছেলে আল্লামা ইকবার অনিক চেয়ারম্যানের মিথ্যাচারে কিছুটা ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যানের নাম্বারে ফোন দেন। চেয়ারম্যান একবার আল্লামা ইকবার অনিকের ফোন কল রিসিভ করে ব্যস্ত আছেন বলে কেটে দেন।

     

    এরপর সাংবাদিক আল্লামা ইকবার অনিক শুক্রবার দুপুরের দিকে উপজেলা শহরে আসলে কফি হাউজে চেয়ারম্যানের দেখা পান এবং তার টাকা নেয়ার বিষয়টি জানতে চান। তখন চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমি বিষয়টি মজা করার জন্য বলেছি’। এবং এ বিষয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান আল্লামা ইকবার অনিকের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে বেল্ট খুলে তাকে পেটাতে থাকেন। এসময় সাংবাদিক আল্লামা ইকবার অনিক মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হলে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে তার বাড়িতে নিয়ে যান। তার মাথা ফেটে যাওয়ায় পরিবারের লোকজন তাকে হাসপাতালে নেয়ার প্রস্তুতি নিতে থাকে।

     

    এসময় চেয়ারম্যানের লোকজন আবারো আল্লামা ইকবার অনিককে পেটানোর জন্য তার বাড়ি ঘেরাও করে রাখে। পরে পুলিশের সহায়তায় তাকে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার মাথায় ৫টি সেলাই দেয়া হয়েছে। বর্তমানে তিনি কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

     

    এ ব্যাপারে সাংবাদিক আল্লামা ইকবার অনিকের বাবা আব্দুল আউয়াল জানান, ঐ চেয়ারম্যানের পোষা গুণ্ডাদের ভয়ে আমার পরিবারের সকলেই এখন কুড়িগ্রাম হাসপাতালে অসুস্থ ছেলের সাথে অবস্থান করছি। এখান থেকে ফিরে আমার ছেলেকে যারা মেরে রক্তাক্ত করেছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করবো।

     

    এ বিষয়টি জানার জন্য রাজারহাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এনামুল হকের সাথে কথা হলে তিনি জানান, সাংবাদিকের বাবাকে আমি চাচা বলে ডাকি। সামান্য ঘটনা নিয়ে ঐ সাংবাদিক আমার সাথে বেয়াদবি করেছিল। সেই সময় লোকজন ধাক্কা দিলে দুজনেই মাটিতে পড়ে। আমি কোমরে ব্যাথা পাই আর সাংবাদিক মাথায় আঘাত পায়। সে আমার ভাই হয়।

     

    রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃষ্ণ কুমার সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এখনও কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    নিউজরুম ২৭ অক্টোবর, ২০১৮ ১০:০১ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 78 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    উত্তরবঙ্গ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7653528
    ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ন