উল্লাপাড়ায় বওলাগাড়া খালে অবৈধ বাঁধ দিয়ে মাছ চাষঃ-৩’শ বিঘা জমিতে ফসল উৎপাদন বন্ধ
১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০৩:২৬ অপরাহ্ন


  

  • উল্লাপাড়া/ অন্যান্য:

    উল্লাপাড়ায় বওলাগাড়া খালে অবৈধ বাঁধ দিয়ে মাছ চাষঃ-৩’শ বিঘা জমিতে ফসল উৎপাদন বন্ধ
    ৩০ অক্টোবর, ২০১৮ ০৬:২৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    উল্লাপাড়া  প্রতিনিধিঃ উল্লাপাড়া উপজেলার সলপ ইউনিয়নের বওলাগাড়া খালে অবৈধভাবে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করার কারণে পাশের গোজারিয়া মাঠের পানি নিষ্কাশন বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে এই বিলের প্রায় ৩’শ বিঘা জমিতে রবি ফসল ও বোরো ধান চাষ করা সম্ভব হচ্ছে না। দু’বছর ধরে এই বাঁধের কারণে কানসোনা, কাশিনাথপুর ও রামনগর গ্রামের ২ শতাধিক কৃষক চরমভাবে ক্ষতির স্বীকার হয়ে আসছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। 

    উল্লিখিত গ্রামবাসীগণ উল্লাপাড়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে দেওয়া লিখিত অভিযোগে বলেছেন, একই ইউনিয়নের পেস্তক গ্রামের প্রভাবশালী মহির প্রামানিক নামের এক ব্যক্তি তার স্বজনদের সহযোগিতায় গোজারিয়া মাঠের পাশ দিয়ে যাওয়া বহু প্রাচীন বওলাগাড়া খালে তার (মহির) নিজের জমির উপর দু’পাশে বাঁধ বেঁধে দীর্ঘদিন যাবৎ মাছ চাষ করে আসছেন। অপেক্ষাকৃত নিচু গোজারিয়া মাঠ থেকে বৃষ্টি ও বন্যার পানি নিষ্কাশনের জন্য বওলাগাড়া খালের সঙ্গে সংযুক্ত একটি নালা রয়েছে। এই নালা দিয়ে বওলাগাড়া খাল হয়ে গোজারিয়া মাঠের পানি বের হয়ে যায়। কিন্তু উক্ত প্রভাবশালী মহির প্রামানিক পার্শ্ববর্তী গ্রামবাসীগণের বাঁধা এবং অনুরোধ উপেক্ষা করে প্রবাহমান খালের পানিতে অবৈধভাবে মাছ চাষ করে যাচ্ছেন। এই কারণে ২ শতাধিক কৃষক গোজারিয়া মাঠে ফসল উৎপাদন করতে না পেরে মারাত্বক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। গ্রামবাসীগণ তাদের আবেদনে অবিলম্বে কথিত অবৈধ বাঁধ অপসরণ করে গোজারিয়া মাঠে ফসল চাষের সুযোগ সৃষ্টির জন্য নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন। 

    এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মহির প্রামানিকের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, বওলাগাড়া বিলে তার নিজের জমির উপর তিনি  বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করছেন। পার্শ্ববর্তী গ্রামের লোকজনের অুনরোধে গোজারিয়া মাঠে চাষাবাদের সুবিধার জন্য তিনি বাঁধের নিচ দিয়ে এ বছর প্লাস্টিক পাইপ দিয়ে দিয়েছেন। 

    এ ব্যাপারে উল্লাপাড়ার ইউএনও মোঃ আরিফুজ্জামানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি ৩টি গ্রামবাসীর অভিযোগপত্র দেওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি দ্রুত তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন। অবৈধভাবে বাঁধ দেওয়া হলে অবশ্যই কৃষকদের স্বার্থে তা অপসরণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

    এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ খিজির হোসেন প্রামানিক জানান, দু’এক দিনের মধ্যে তিনি ব্যক্তিগত ভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কার্যকর ব্যবস্থা নেবেন।

    করেসপন্ডেন্ট, উল্লাপাড়া ৩০ অক্টোবর, ২০১৮ ০৬:২৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 107 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    উল্লাপাড়া অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7664630
    ১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০৩:২৬ অপরাহ্ন