ইস্তিহার দেখে ভোট দিবে জনগণ উল্লাপাড়ায় আইনশৃঙ্খলা,শিক্ষা, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রাধান্য পাবে নির্বাচনী ইস্তিহার
১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:৫৪ অপরাহ্ন


  

  • উল্লাপাড়া/ অন্যান্য:

    ইস্তিহার দেখে ভোট দিবে জনগণ উল্লাপাড়ায় আইনশৃঙ্খলা,শিক্ষা, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রাধান্য পাবে নির্বাচনী ইস্তিহার
    ০৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:০৬ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    রায়হান আলী উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার বৃহত্তর সিরাজগঞ্জ ৪ উল্লাপাড়া আসনে ১ টি উপজেলা, ১ টি পৌরসভা ১৪ টি ইউনিয়ন ও ৪৩০ টি গ্রাম নিয়ে গঠিত । কৃষি নির্ভরশীল এই অঞ্চলের প্রায় ৫০ ভাগ মানুষ কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে।এছাড়াও বাংলাদের বিখ্যাত চলনবিলের একাংশ রয়েছে এই উপজেলায়। লোকসংখ্যা ৬ লক্ষাধীক ভোটার সংখ্যা প্রায় ৩ লাখ ৯১ হাজার ১১৫ জন ।

    একাদশ জাতীয় নির্বাচন কে সামনে রেখে সাধারণ জনগণের মনে বিভিন্ন চাওয়াপাওয়ার হিসাব রয়েছে। যে হিসাব গুলো মিলিয়ে দিবে আগামী সাংসদ এই আশাবাদী সাধারণ জনগণ।তবে আগে থেকেই সরকারদলীয় মনোনয়ন প্রার্থীরা প্রচার প্রচারণায় নির্বাচনী মাঠ চুষে বেড়াচ্ছে। ভোটারদের দিচ্ছে বিভিন্ন আশ্বাস এই আশ্বাস বাস্তবায়ন করবে নির্বাচিত হলে। কৃষি নির্ভরশীল উল্লাপাড়া উপজেলা তাই খেটে খাওয়া মানুষ গুলো চায় কৃষি বান্ধব সংসদ সদস্য। ফসলাদি বেশি বেশি উৎপাদন করতে চাইলে দিতে হবে সরকারি বাড়তি চাহিদা। কৃষি প্রণোদনা, কৃষি প্রশিক্ষণ,ফসলের ন্যায্য মূল্য,কম দামে কীটনাশক ও ইউরিয়া সারের মূল্য নির্বাচনী ইস্তিহারে এই বিষয়াদি সাধারন কৃষকের কাছে নির্বাচনী ইস্তিহারে গুরুত্ব পাবে বেশি।

    উল্লাপাড়া উপজেলায় যোগাযোগ ব্যবস্থা আগের চেয়ে অনেক উন্নত হয়েছে এর সাথে মানুষের জীবনযাত্রার মান ও পরিবর্তন হয়েছে।কিন্তু এখনো খেঁয়া নৌকায় দৈনন্দিন চলাচল করতে হচ্ছে প্রায় ২০ টি গ্রামের মানুষের। উপজেলার অনেক গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক সড়ক প্রতিদিন প্রায় ১০ হাজার মানুষ খেঁয়াপারাপার হয়ে স্কুল কলেজ মাদ্রাসা এবং কর্মস্থলে যেয়ে থাকে পঞ্চক্রোশী ইউনিয়নের সকলের দাবি ফুলজোড় নদী কালিগঞ্জ খেঁয়াঘাটে একটি ব্রিজ নির্মাণের উদ্যােগ নিবে আগামী সাংসদ।

    ব্রিজ টি নির্মাণ হলে সিরাজগঞ্জের সাথে যোগাযোগ আরো সহজ হবে । উল্লাপাড়া থেকে সিরাজগঞ্জের দূরত্ব যেখানে ৩০ কিলোমিটার ব্রিজ টি নির্মাণ করলে ১০ কিলোমিটার দূরত্ব কমে যাবে। নদীর ওপারের গ্রাম গুলো উল্লাপাড়ার সাথে যোগাযোগ সুন্দর হবে।এছাড়াও কামারখন্দ,জামতৈল,বেলকুচি এই দুটি উপজেলার সাথে যোগাযোগ অনেক সুবিধা হবে।১০০ মিটারের এই ব্রিজ টি পরিবর্তন করতে পারে প্রায় ২০ হাজার মানুষের ভাগ্য।

    এছাড়াও রাস্তার দাবি করলে উঠে আসে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল উধুনিয়া,লাহিড়ী মোহনপুর, বড়পাঙ্গাসী। এই এলাকার রাস্তাঘাট বন্যা ডুবে থাকে ৪ মাস। তাই রাস্তাঘাট ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনেক বেশি। বন্যায় কাঁচা সড়ক গুলো বারবারই ভেঙে যায়। লাহিড়ী মোহনপুর বাজার থেকে কালিকৈর যাওয়ার ২ কিলোমিটার রাস্তা নেই বললেই চলে এছাড়াও লাহিড়ী মোহনপুর বাজার থেকে উধুনিয়া এবং প্রয়াত আওয়ামীলীগ নেতা পঁলাশডাঙ্গা যুব শিবিরের সর্বাধিনায়ক আব্দুল লতিফ মির্জার প্রয়াত ভিটা বংকিরাটে রাস্তা না থাকার দীর্ঘদিনের ভোগান্তি থেকে এবার মুক্ত হতে চায় এই এলাকার জনসাধারণ। ভোটার সংখ্যাধিক এই এলাকার জনসাধারণের দীর্ঘদিনের এই দাবি গুলো নির্বাচনী ইস্তিহারে গুরুত্ব পাবে বেশি।

    শিক্ষাবিদ অধ্যাক্ষ সিরাজুল ইসলাম বলেন শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নয়ন করতে হলে শিক্ষাঙ্গন রাজনীতি মুক্ত রাখতে হবে। শিক্ষার্থীদের রাজনৈতিক কাজে ব্যবহার করা যাবেনা। এছাড়াও তিনি আগামী সাংসদের কাছে দাবি রাখেন উল্লাপাড়ায় যেসকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিও হয়নি তাদের এমপিও ভুক্তির ব্যবস্থা করতে হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিষয় টি অনেক গুরুত্ব পাবে।শিক্ষক প্রতিনিধি হিসেবে তিনি আরো দাবি রাখেন অনেক শিক্ষক আছে যারা অনেক বছর বিনা বেতনে চাকুরী করছে এমপিও হয়নি তাদের তাদের চাকুরী জীবন শেষ হয়ে যাচ্ছে কিন্তু বেতন পায়নি তাদের বেতনের ব্যবস্থা করতে হবে।

    উল্লাপাড়ায় এইচ,ইমাম বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ জাতীয়করণের ব্যাপারে তিনি বলেন বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী নারী বিরোধী দলীয় নেত্রী নারী, জাতীয় সংসদের স্পিকার নারী তাহলে নারীরা কেন পিছিয়ে থাকবে। উল্লাপাড়া এইচ টি ইমাম বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ সরকারিকরণ করে নারী শিক্ষা কে আরো গতিশীল করতে হবে।

    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক প্রতিনিধি বলেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নের বড় বাঁধা কমিটি ব্যবস্থা। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সকল উন্নয়ন কাজে তারা বাঁধা প্রদান করে থাকে। কমিটিরাই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি করে। এজন্য তিনি মতামত দেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলো সরকারি

    সাধারন জনগণ দাবি রাখেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসার মান এবং সজ্জা আরো বাড়াতে হবে।এতে সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সকল চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে পারবে।উল্লাপাড়াবাসী বিষয় টি খুবি গুরুত্বভাবে দেখছে। নির্বাচনী ইস্তুিহারে বিষয় টি অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

    পরিবেশবাদী আবুল হোসেন দাবি রাখেন বৈশ্বিক উষ্ণায়ন, কার্বন নিঃসরণ, জলবায়ু পরিবর্তন ইত্যাদির ক্ষতির ব্যাপকতা রোধ করে উপযুক্ত পরিবেশ এবং কৃষি নির্ভর শিক্ষানগরী উল্লাপাড়াকে সবুজ নগরী হিসাবে গড়ে তুলতে প্রচুর পরিমাণ বৃক্ষরোপন করার আহবান জানান তিনি।

    বিশিষ্টজনেরা মনে করে উল্লাপাড়ায় সরকার অথবা বিরোধী দল থেকে যেই এমপি নির্বাচিত হোক না কেন আইনশৃঙ্খলা যেন সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় থাকে।সন্ত্রাস,নাশকতা,ইভটিজিং,বাল্যবিবাহ,মাদক বন্ধ করতে কার্যকারী ভূমিকা পালন করতে হবে।

    করেসপন্ডেন্ট, উল্লাপাড়া ০৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:০৬ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 265 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    উল্লাপাড়া অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7643917
    ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:৫৪ অপরাহ্ন