জয়পুরহাটে ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন স্থানীয়রা
১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৭:২৯ অপরাহ্ন


  

  • জাতীয়/ কৃষি ও খাদ্য:

    জয়পুরহাটে ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন স্থানীয়রা
    ১১ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:৩৬ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    জেলার উপর দিয়ে বয়ে চলা তুলশীগঙ্গা নদীর আক্কেলপুর পয়েন্টে ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন স্থানীয় ভাবে গড়ে ওঠা কোলা মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির বেকার সদস্যরা।     

    জানা যায়, জেলার বুক চিরে বয়ে চলেছে তুলশীগঙ্গা নদী। এ নদীর আক্কেলপুর উপজেলার শ্রীরামপুর ব্রিজ সংলগ্ন কোলা গনিপুর নামক স্থানে ভিয়েতনাম থেকে আনা ভাসমান খাঁচায় এখন মাছ চাষ করছেন ওই এলাকার ২০ জন পুরুষ, মহিলা ও যুবক-যুবতী নিয়ে গঠিত কোলা গনিপুর সোনালী মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি। স্থানীয় মৎস্য বিভাগের সহযোগিতায় সাহস ও বুদ্ধি কাজে লাগিয়ে ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষের মাধ্যমে অনেক কিছু করার স্বপ্নও দেখছেন স্থানীয়রা। আক্কেলপুর মৎস্য বিভাগ ও সমিতির যৌথ অর্থায়নে প্রথমে চার লাখ টাকায় শুরু করা হয় ভাসমান মৎস্য চাষ।

    উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মহিদুল ইসলাম বলেন, ভিয়েতনাম থেকে আনা ভাসমান খাঁচা গুলো চাঁদপুর থেকে সংগ্রহ করে তুলশীগঙ্গা নদীর কোলা গনিপুর নামক স্থানে স্থাপন করা হয়। মাছ যাতে চুরি না হয় সে জন্য পাশে সার্চ লাইট বসানোসহ বাঁশের মাচং তৈরি করে দিনে রাতে পাহারা দেয় সমিতির সদস্যরা। বর্তমানে খাঁচায় তেলাপিয়া, মনোসেকস তেলাপিয়া, টেংরা, পাঙ্গাস, সিলভার কাপ, পাবদা মাছ চাষ করা হচ্ছে। চার মাস আগে স্থাপন করা ১০টি খাঁচায় কেজিতে ১৫ টি হিসাবে ১৪০ কেজি তেলাপিয়া পোনা ছাড়া হয়। এতে খরচ পড়ে ১৯ হাজার টাকা।

    বর্তমানে একেকটি তেলাপিয়া মাছের ওজন হয়েছে ৫০০ গ্রাম থেকে শুরু করে ৭শ’, ৮শ’ গ্রাম পর্যন্ত যা বাজার মূল্যে এক লাখ টাকা ছাড়িয়ে গেছে বলে জানান, মৎস্য কর্মকর্তা মহিদুল ইসলাম। বাঁশের মাচা তৈরি করে স্থানীয় ভাবে অল্প খরচেও খাচায় মাছ চাষ করা সম্ভব বলেও জানান তিনি।

    গ্রামের বেকার যুবক-যুবতীদের ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ দেখে উদ্বুদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি অন্যন্য এলাকার যুব সমাজ মাছ চাষে এগিয়ে আসছেন বলে জানান, কোলা গনিপুর সোনালী মৎস্যচাষ সমবায় সমিতির সভাপতি নূর ইসলাম। ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ করে বছরে তিন বার মাছ বিক্রি করা সম্ভব বলেও জানান তিনি। আক্কেলপুর উপজেলা মৎস্য বিভাগের পরামর্শে ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ করে বছরে খরচ বাদে দুই লাখ টাকা আয় করা সম্ভব বলে সমিতির সদস্যরা জানান। ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ করে অন্যান্য এলাকার বেকার যুবরা ও বর্তমানে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। বাসস

    নিউজরুম ১১ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:৩৬ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 60 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    জাতীয় অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7967946
    ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৭:২৯ অপরাহ্ন