এলজিইডির বাস্তবায়নে উন্নয়নের মহাযাত্রায় কাজিপুর
১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন


  

  • কাজিপুর/ অন্যান্য:

    এলজিইডির বাস্তবায়নে উন্নয়নের মহাযাত্রায় কাজিপুর
    ০২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৪:৩৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    আবদুল জলিলঃ কাজিপুর এখন  নানা উন্নয়নের মোড়কে ঢাকা পড়েছে।  বর্তমান সরকারের মেয়াদকালে ১০টি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি), কাজিপুর, সিরাজগঞ্জ। গৃহিত প্রকল্পগুলোর মধ্যে ভূমিহীন অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বাসস্থান নির্মাণ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণ, পল্লী সড়ক ও ব্রীজ/কালভার্ট নির্মাণ, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ কাজ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

     
    কাজিপুর এলজিইডি সুত্রে জানা গেছে, বর্তমান সরকারের মেয়াদে এ পর্যন্ত মোট স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) গ্রামীন অবকাঠামোর ব্যাপক উন্নয়নসহ ভূমিহীন অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের মাথাগোঁজার ঠাঁইসহ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রায় ৬৬ কোটি ৫৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৮ জন ভূমিহীন অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বাসস্থান নির্মাণ, ২কোটি ৩৩ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা ব্যয়ে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণ, ১ কোটি ১২ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ০১টি ইউনিয়ন পরিষদ ভবন নির্মাণ, ৪ কোটি ৯০ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা ব্যয়ে উপজেলা কমপ্লেক্স এর সম্প্রসারিত ভবন ও হলরুম নির্মাণ অন্যতম।


     এছাড়া প্রায় শত কোটি টাকা ব্যয়ে ৯৫ কিলোমিটার পাকা সড়ক নির্মাণ ও সংস্কার কাজ শেষ হয়েছে। আরও ৮০ কিলোমিটার পাকা সড়ক, ৩০০মিটার ব্রীজ/ কালভার্ট, বিদ্যালয় সংযোগ সড়ক, ইউনিয়ন ভূমি অফিস, গ্রোথ সেন্টার ও ০১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্মাণ কাজের দরপত্র প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


    এলজিইডি’র তথ্য মতে, বর্তমান কাজের গড় অগ্রগতি ৮৫ শতাংশ। এছাড়া তৃতীয় প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় প্রায় ৩০ কোটি ৫৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৬৮ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ কাজের মধ্যে প্রায় ৫০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করা হয়েছে। অবশিষ্ট  ১৮টি বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ কাজের গড় অগ্রগতি ৯০ শতাংশ যার উন্নয়ন কাজ আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি নাগাদ শেষ হবে।

     
    উপজেলা প্রকৌশলী বাবলু মিয়া জানান, যেভাবে কাজ এগিয়ে চলছে তাতে করে আগামী ২০২০ সালের মধ্যে এলজিইডি, কাজীপুরের প্রয়োজনীয় কোন সড়কই আর কাঁচা থাকবে না। এছাড়া বর্তমানে পল্লী সড়ক ও কালভার্ট মেরামত/ সংস্কার, অগ্রাধিকার ভিত্তিক গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প, পিইডিপি-৩, আরটিআইপি-২, বৃহত্তর পাবনা, বগুড়া গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পসহ অন্যান্য প্রকল্পের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। 


    এছাড়াও আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়নকল্পে আরইআরএমপি ও জিওবি’র অর্থায়নে বিভিন্ন মেয়াদে ২৪৬ জন নারীকর্মীকে কর্মসংস্থানসহ আতœনির্ভরশীল ও সাবলম্বী হিসাবে সমাজে প্রতিষ্ঠার সুযোগ করে দিয়েছে এবং অত্র জেলার গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়নে নতুন করে “সিরাজগঞ্জ জেলার গুরুত্বপূর্ণ গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন” প্রকল্পের কার্যক্রম ব্যাপক ভাবে শুরু হয়েছে। 


    এলজিউডি’র তত্বাবধানে চালিতাডাঙ্গা ইউপি ভবন, আলমপুর-হাটশিরা সড়ক নির্মাণ, ৪১টি সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পূনঃনির্মাণ, ৪টি হাট-বাজার উন্নয়ন, ৩০.৩৮৫ কিলোমিটার রাস্তা, ৯২৫.৫০ মিটার ব্রিজ কালভাট নির্মাণ, ১৫টি সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চলমান, ৩৯.৩৫ কিলোমিটার রাস্তা মেরামত শেষ। আর ২৫.৭৯০ কিলোমিটার রাস্তার উন্নয়ন কাজও শেষ পর্যায়ে। নতুন করে সামান্য কিছু কাঁচা রাস্তা যা রয়েছে সেটিও পাকাকরণের জন্যে প্রকল্প গ্রহণের  সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাননীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রি মহোদয়। 
     

     

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,কাজিপুর ০২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৪:৩৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 104 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    কাজিপুর অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7987626
    ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন