সিরাজগঞ্জে সরকারি দুই প্রতিষ্ঠানের চিকিৎসক ও নার্সদের কর্তব্য অবহেলায় দুই নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ
১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৯:৪০ পূর্বাহ্ন


  

  • সিরাজগঞ্জ/ অন্যান্য:

    সিরাজগঞ্জে সরকারি দুই প্রতিষ্ঠানের চিকিৎসক ও নার্সদের কর্তব্য অবহেলায় দুই নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ
    ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৬:৪৬ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    সোহাগ হাসান জয়ঃ সিরাজগঞ্জে সরকারি দুটি প্রতিষ্ঠানের চিকিৎসক ও নার্সদের কর্তব্য অবহেলায় দুই নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা জেনারেল হাসপাতাল এবং মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে পৃথক এ দুটি ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র ভাংচুর করেছে ভুক্তভোগী পরিবারের স্বজনরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে করে।


    জানা যায়, সোমবার সকালে পৌর এলাকার হোসেনপুর মহল্লার আলম শেখের স্ত্রী শাবানা খাতুনের প্রসব বেদনা উঠলে পরিবারের লোকজন তাকে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। রাতে স্বাভাবিক প্রত্রিয়ায় বাচ্চা প্রসব না হওয়ায় মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে পরিবারের লোকজন সিজার করার জন্য বলেন। কিন্তু চিকিৎসক ও নার্সরা তাদের কথা গুরুত্ব না দিয়ে জোরপূর্বক প্রবস করানোর চেষ্টা করলে মৃত বাচ্চা জন্ম নেয়। 


    ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা বলেন, হাসপাতালে মানুষ চিকিৎসা সেবার জন্য এসে লাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছে। আমরা এ ঘটনার সঠিক বিচার চাই। আর যেন কোন মাকে এমন মৃত্যু না দেখতে হয়। এব্যাপারে সিরাজগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) নূরুল ইসলাম জানান, প্রসব করানোর আগেই মায়ের গর্ভে নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে অবগত করেছেন।

     
    এ ব্যাপারে সংবাদকর্মীরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তারা কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।  অপরদিকে, সোমবার রাতে ডিউটির সময় চিকিৎসক না থাকায় শহরের মুজিব সড়কে অবস্থিত মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে এক নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র ভাঙ্গচুর করেছে বিক্ষুব্ধ স্বজনরা।

     

    ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, পৌর এলাকার জানপুর মহল্লার জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী নাসিমা খাতুন ১৭বছর পর সন্তান জন্মদানের জন্য মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে যান। এ সময় সেখানে চিকিৎসক ও পর্যাপ্ত নার্স ছিলেন না। পরে একজন সিনিয়র স্টাফ নার্স প্রসব করানোর চেষ্টা করলে মৃত বাচ্চা জন্ম নেয়। এ ব্যাপারে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডা. নাফিসা শারমিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন কথা বলতে রাজি হননি।  


    তবে, এ ঘটনায় তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক তারিকুল ইসলাম জানিয়েছেন। তিনি গণমাধ্যম কর্মিদের জানান, আগামি তিন কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সিরাজগঞ্জ ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৬:৪৬ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 137 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    সিরাজগঞ্জ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    7987709
    ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৯:৪০ পূর্বাহ্ন