সিরাজগঞ্জে বিএনপি ও আওয়ামীলীগের পাল্টাপাল্টি সংবাদ সন্মেলন
২২ জানুয়ারী, ২০১৯ ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন


  

  • সিরাজগঞ্জ/ রাজনীতি:

    সিরাজগঞ্জে বিএনপি ও আওয়ামীলীগের পাল্টাপাল্টি সংবাদ সন্মেলন
    ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৩:২৮ অপরাহ্ন প্রকাশিত


    স্টাফ রির্পোটার: শুক্রবার সন্ধ্যায় সিরাজগঞ্জ-২ আসনের সদরে বিএনপি ও পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনায় শনিবার পাল্টাপাল্টি সংবাদ সন্মেলন করেছে বিএনপি ও আওয়ামীলীগ।

    সকাল ১১টার দিকে সিরাজগঞ্জ-২ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রুমানা মাহমুদের হোসেনপুরের বাসভবনে এবং ১২টার দিকে একই আসনের আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ডা: হাবিবে মিল্লাত মুন্না জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে সংবাদ সন্মেলন করেন।

    সংবাদ সন্মেলনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ও জেলা বিএনপির সভাপতি রুমানা মাহমুদ অভিযোগ করে বলেন,
    আমি বাসায় অবস্থান করাকালীন শুক্রবার বিকেল থেকে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিনের নেতৃত্বে আইন শৃংখলা বাহিনীর সামনেই সশ্রস্ত্র অবস্থায় বিএনপি কার্যালয়ে সামনে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়। বিষয়টি প্রশাসনকে অবগত করার পর ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসের আলোচনা সভায় অংশ নেয়ার জন্য সন্ধ্যায় দলীয় অফিসে যাচ্ছিলাম। ইসলামিয়া কলেজ এলাকায় যাবার পরই পুলিশ আমাদের উপরে অর্তকিত হামলা চালিয়ে গুলিবর্ষণ করতে থাকে। আমি শরীরের ৫টি স্থানে স্প্রিন্টার বিন্ধ হয়ে মাটিতে পড়ে যাই। পাশাপাশি মহিলা দলের নেত্রী মেরিনা, বিএনপি নেতা সুইট, ছাত্রদলের জুনায়েত ও জয়সহ অন্তত: ২০জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় ৩জনকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৬জনকে।

    এ ঘটনার জন্য দায়ী করে তিনি সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তী, সদর থানার ওসি মোহাম্মদ দাউদ ও পরিদর্শক তদন্ত রফিকুল ইসলামের অপসারন দাবী করেন এবং জেলা রিটানিং অফিসারকে বিষয়টি মৌখিক ভাবে অবগত করেছেন বলে সংবাদ সন্মেলনে জানান তিনি। এছাড়াও তিনি সিরাজগঞ্জ-৩, ৪, ৫ ও ৬ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের উপরে হামলা, বসতবাড়ি ভাংচুর ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ করেন রুমানা মাহমুদ।  

    অপরদিকে, আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ডা: হাবিবে মিল্লাত মুন্না সংবাদ সন্মেলনে বলেন, পুলিশের উপরে অর্তকিত হামলায় তাদের ৪জন সদস্য আহত হয়েছেন। আওয়ামীলীগের কোন নেতাকর্মী সেখানে ছিল না। সংবাদ মাধ্যমে মিথ্যা সংবাদ প্রচারের জন্য তারা সংবাদ সন্মেলন করেছে। ঘটনার দিন পুলিশ সুপার সিরাজগঞ্জে ছিল না। অথচ তাকে বির্তকিত করার জন্য তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়েছে। আমরা বিএনপি বিরুদ্ধে কিছু করছি না। অথচ তারা আমাদের পোষ্টার ছিড়ে ফেলছে, হিন্দু সমর্থকসহ অন্যান্য নেতাদের বসতবাড়ি ভাংচুর ও বোমা হামলা করছে। এ সকল ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার আসামীদের গ্রেপ্তার ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবী করেন হাবিবে মিল্লাত মুন্না।    

     

    স্টাফ করেস্পন্ডেন্ট, সিরাজগঞ্জ ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৩:২৮ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 324 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    সিরাজগঞ্জ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    8474146
    ২২ জানুয়ারী, ২০১৯ ০৫:১০ পূর্বাহ্ন