সিঁড়িতে এখনও লেগে আছে নুসরাতের রক্ত, পড়ে আছে জামার পোড়া অংশ
২০ জুন, ২০১৯ ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন


  

  • জাতীয়/ অপরাধ:

    সিঁড়িতে এখনও লেগে আছে নুসরাতের রক্ত, পড়ে আছে জামার পোড়া অংশ
    ১৫ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:৪৭ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    ডেস্ক রিপোর্টঃ ফেনীর সোনাগাজীতে অধ্যক্ষের নিপীড়নের শিকার হয়ে বিচার চাওয়ায় খুন হওয়া মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির রক্তের দাগ ও জামার পোড়া অংশ এখনও পড়ে আছে ঘটনাস্থলে।

     

    সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কম্পাউন্ডে অবস্থিত তিন তলা সাইক্লোন সেন্টারের ছাদে ডেকে নিয়ে আগুন দেয়া হয় নুসরাতের গায়ে। ভবনের সিঁড়িতে এখনও নুসরাতের জামা-কাপড়ের পোড়া অংশ রয়ে গেছে।ওই স্থানটি ঘিরে রাখা হয়েছে, তদন্তের আলামত সংগ্রহের জন্য।

     

    কলঙ্কের সাক্ষী হয়ে থাকা ওই ভবনে লোকজনের আনাগোনা।দূর-দূরান্ত থেকে অনেকেই আগ্রহ নিযে ভবনটি পরিদর্শনে আসছেন।তারা দূর থেকে নুসরাতের পোড়া জামা কাপড় দেখে হামলাকারীদের নিন্দা জানাচ্ছেন।

     

    নুসরাতের রক্ত ও জামার পোড়া অংশ ওইদিনের নৃশংসতার সাক্ষী দিচ্ছে। অধ্যক্ষ সিরাজ উদ-দৌলার লোকজনের আগুন দেয়ার পরপরই সিঁড়ি দিয়ে নামতে নামতে বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করেছিলেন নুসরাত।

     

    সরেজমিনে মাদ্রাসায় গিয়ে দেখা যায়, তিন তলা সাইক্লোন সেন্টারের ছাদ ও সিঁড়িজুড়ে নুসরাতের জামার পোড়া অংশ লেগে আছে। রক্তের দাগও লেগে আছে।নিচতলায় নামাজের বিছানায়ও পোড়া দাগ লেগে রয়েছে। দাগগুলো এখনও নির্মমতার সাক্ষী হয়ে রয়েছে।ছাদ থেকে সিঁড়ি বেয়ে নামতে নামতে একেবারে নিচেও পাওয়া যায় ক্ষত চিহ্ন। পুরো ক্যাম্পাসের চারপাশ দেয়ালে ঘেরা। সামনে কলাবসিবল গেইট। মূল গেইট ব্যতিত অন্য কোনো জায়াগা দিয়ে প্রবেশ কিংবা বের হওয়ার সুযোগ নেই।

     

    এদিকে নুসরাত হত্যা মামলার দুই আসামি নুর উদ্দিন ও শাহদাত হোসেন শামীম গতকাল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তারা জানায়, মামলার প্রধান আসামি অধ্যক্ষ সিরাজ উদ-দৌলা জেল থেকেই তাকে হত্যার নির্দেশ দেন।কারাবন্দি সিরাজের যুক্তি- নুসরাত যৌন নিপীড়নের মামলা করে গোটা আলেম সমাজকে হেয় করেছে।তাই তার বেঁচে থাকার কোনো অধিকার নেই।সিরাজের এ নির্দেশনা পেয়েই নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার ছক করে অপর আসামিরা।

     

    বৃহস্পতিবার রাতে ময়মনসিংহের ভালুকা থেকে নূর উদ্দিন ও পরদিন শুক্রবার সকালে মুক্তাগাছা থেকে শাহাদাত হোসেন শামীমকে গ্রেফতার করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। নূর উদ্দিন নুসরাত হত্যা মামলার ২নং ও শাহাদাত হোসেন শামীম ৩নং আসামি।

     

    নুসরাত হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে এজাহারভুক্ত ছয় আসামি এবং এজাহারবহির্ভূত সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাসহ ১১ জন আসামি রিমান্ডে রয়েছেন।

     

    এর আগে গত ৯ এপ্রিল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সরাফ উদ্দিন আহম্মেদের আদালত নূর হোসেন, কেফায়াত উল্লাহ, মোহাম্মদ আলা উদ্দিন ও শাহিদুল ইসলামের পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

     

    পরদিন ১০ এপ্রিল অধ্যক্ষ এসএম সিরাজ উদ দৌলাকে সাতদিন, আবছার উদ্দিন ও আরিফুল ইসলামকে পাঁচদিন করে রিমান্ড দেন একই আদালতের বিচারক। ১১ এপ্রিল উম্মে সুলতানা পপি ও যোবায়ের হোসেনকে পাঁচদিন করে রিমান্ড দেন একই আদালতের বিচারক সরাফ উদ্দিন আহম্মেদ।

     

    ১৩ এপ্রিল শনিবার মামলার আরেক আসামি জাবেদ হোসেনকে সাত দিনের রিমান্ড দিয়েছেন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসাইন।

     

    গত বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় আইসিইউতেই মারা যান ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি। পরদিন জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

     

    ৬ এপ্রিল সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় যান নুসরাত জাহান রাফি। মাদ্রাসাছাত্রী তার বান্ধবী নিশাতকে ছাদের ওপর কেউ মারধর করছে এমন সংবাদে তিনি ছাদে যান। সেখানে বোরকাপরা ৪-৫ জন তাকে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ-দৌলার বিরুদ্ধে করা শ্লীলতাহানির মামলা তুলে নিতে চাপ দেয়।

     

    অস্বীকৃতি জানালে তারা রাফির গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় সোমবার রাতে অধ্যক্ষ সিরাজ উদ-দৌলা ও পৌর কাউন্সিলর মুকছুদ আলমসহ আটজনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন অগ্নিদগ্ধ রাফির বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান।

     

    এর আগে ২৭ মার্চ ওই ছাত্রীকে নিজ কক্ষে নিয়ে শ্লীলতাহানি করেন অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলা। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন। ওই দিনই অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলাকে আটক করে পুলিশ। সে ঘটনার পর থেকে তিনি কারাগারে আছেন।

    ডেস্ক রিপোর্টঃ ১৫ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:৪৭ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 129 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    জাতীয় অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    বিশ্বকাপ ক্রিকেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    10299072
    ২০ জুন, ২০১৯ ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন