সিরাজগঞ্জে চিকিৎসাধীন সেই অসুস্থ্য বৃদ্ধার পরিচয় মিলেছে
২৫ মে, ২০১৯ ০৪:১৬ অপরাহ্ন


  

  • সিরাজগঞ্জ/ অন্যান্য:

    সিরাজগঞ্জে চিকিৎসাধীন সেই অসুস্থ্য বৃদ্ধার পরিচয় মিলেছে
    ৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ০৬:৫৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    সোহাগ হাসানঃ  সিরাজগঞ্জে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সেই অসুস্থ্য বৃদ্ধার পরিচয় মিলেছে। তিনি বগুড়ার দুপচাচিয়া এলাকার বাসিন্দা ও যাত্রাদলের শিল্পী শ্যামলী রানী (৫৬)। তাকে তার সন্তানরাই ওই রেলস্টেশনে ফেলে রেখে যায়। তার স্বামী প্রায় ২ বছর আগে মারা গেছেন। তার একমাত্র ছেলের নাম কালু যিনি যাত্রাদলের ঢোল বাদক। হাসি ও খুশিনামে দু’টি মেয়েও রয়েছে তার। সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা মেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এই বৃদ্ধার পরিচয় মিলেছে। সোমবার সন্ধ্যায় সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার রেলওয়ে কলোনি মহল্লার সিংপাড়া এলাকার আদিবাসী সম্প্রদায়ের বেশ কয়েকজন ব্যক্তি এসব তথ্য জানান। তারা জানান, ওই বৃদ্ধার নাম শ্যামলী রানী। তিনি সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকরই মেয়ে ছিলেন। তিনি যাত্রাদলের শিল্পী হিসেবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অবস্থান করছিলেন। প্রথমে তার বিয়ে হয় এক সংখ্যালঘু ব্যক্তির সঙ্গে। কিছুদিন পর এই বিয়ের বিচ্ছেদ হয়। পরবর্তীতে যাত্রাদলের এক মুসলিম শিল্পীর সঙ্গে তার বিয়ে হয়। এতে শ্যামলীর সঙ্গে তার মায়ের বাড়ির আত্মীয়ের সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যায়। পৌর এলাকার বিয়ারঘাট এলাকার বাসিন্দা তনু সিং সাংবাদিকদের জানান, শ্যামলী আমার ফুপাতো বোন। রেলওয়ে কলোনি মহল্লায় শ্যামলীর খালা কানন বালা ও মাধবী রানী এখনও জীবিত রয়েছেন। শুনেছি দুপচাচিয়া এলাকার কোনো এক মুসলিম যাত্রাশিল্পীর সঙ্গে শ্যামলীর বিয়ে হয়েছিল। তার ওই দুই মেয়ে ও একটি ছেলেও রয়েছে। পক্ষাঘাতগ্রস্ত বৃদ্ধা শ্যামলী বর্তমানে অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। সমাজকর্মী মামুন বিশ্বাসসহ অনেকেই এই বৃদ্ধার খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। তার পরিবারের এখনও কোন খোঁজ খবর পুরোপুরি না পাওয়ায় তাকে বৃদ্ধাশ্রমে দেয়ার পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে। মামুন বিশ্বাস সাংবাদিকদের বলেন, চরম নির্মমতা ও নিষ্ঠুরতার পরিচয় দিয়ে এই বৃদ্ধাকে প্রায় চার সপ্তাহ আগে স্টেশনে ফেলে রেখে যায় তার স্বজনরা। তিনি মৃত্যু যন্ত্রণা নিয়ে স্টেশনের পাশের খোলা জায়গায় অবস্থান করছিলেন। প্রায় ১ মাস আগে এই অসুস্থ বৃদ্ধাকে উল্লেখিত স্থান থেকে উদ্ধার করে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. ফরিদুল ইসলাম জানান, ওই বৃদ্ধার সিটি স্ক্যানসহ বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তবে পুরোপুরি সুস্থ হতে আরো সময় লাগবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সিরাজগঞ্জ ৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ০৬:৫৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 228 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    সিরাজগঞ্জ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    9982374
    ২৫ মে, ২০১৯ ০৪:১৭ অপরাহ্ন