বেলকুচিতে ভিজিএফের ৮৭৭ বস্তা চাল বাজারে বিক্রি সময় আটক
২০ জুন, ২০১৯ ১০:৩১ পূর্বাহ্ন


  

  • বেলকুচি/ অপরাধ:

    বেলকুচিতে ভিজিএফের ৮৭৭ বস্তা চাল বাজারে বিক্রি সময় আটক
    ২৮ মে, ২০১৯ ০৭:০৬ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    জহুরুল ইসলামঃ সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নে দুঃস্থদের জন্য বরাদ্দকৃত ভিজিএফ কর্মসূচির প্রায় সোয়া ২৬ মেট্রিকটন ওজনের ৮৭৭ বস্তা সরকারি চাল বাজারে বিক্রি করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই চাল জব্দ করেন। একই সঙ্গে সরকারি চাল ক্রয়ের অপরাধে ডিলার ও গোডাউন মালিক সিদ্দিক মাস্টার এবং তার পার্টনার আব্দুস সালামকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, গত সোমবার রাতে রাজাপুর ইউনিয়নের ডিলার সুলতানের মাধ্যমে জেলা শহরের মিরপুর এসবি ফজলুল হক রোডের ডিলার সিদ্দিক মাস্টার ও তার পার্টনার আব্দুস সালামের নিকট ওই চাল কালোবাজারে বিক্রি করা হয়। সরকারি এলএসডি গোডাউনে গোপনে বিক্রির জন্য এর অদুরে মিরপুর তেল পাম্পের কাছে এসব চাল মজুদ রাখা হয়। র‌্যাব-১২ এর অপরাধ দমন বিশেষ শাখার অধিনায়ক এএসপি এসএম জামিল আহম্মেদ জানান, বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা সিরাজগঞ্জ জেলা সদরের মিরপুরে সরকারি খাদ্য গুদামের হ্যান্ডলিং ঠিকাদার ও ডিলার সিদ্দিক মাস্টারের গোডাউনে অভিযান চালিয়ে ২৬ মেঃ টন চাল জব্দ করি। এসব চাল বেলকুচির রাজাপুর ইউনিয়নের ডিলার সুলতানের মাধ্যমে কালোবাজারে ক্রয় করা হয়েছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সিদ্দিক মাস্টার ও তার পার্টনার আব্দুস সালাম স্বীকার করেছেন। চালগুলো জব্দের পর বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে। বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইফুর রহমান বলেন, বেলকুচির রাজাপুর ইউনিয়নে সরকারি তালিকা অনুযায়ী দুঃস্থদের মধ্যে সঠিকভাবে বন্টন না করে সোমবার রাতে রাজাপুর ইউনিয়নের ডিলার সুলতানের মাধ্যমে দু’টি ট্রাকে সেসব চাল পরিবহন করে সিরাজগঞ্জের খাদ্যগুদামের ডিলার সিদ্দিক মাস্টারের কাছে বিক্রি করা হয়েছে, এমন সংবাদ পেয়ে মঙ্গলবার সকালে আমরা তাৎক্ষণিক র‌্যাবকে জানাই। র‌্যাব দুপুরে অভিযান চালিয়ে সেসব চাল জব্দ করে। বিষয়টি এরই মধ্যে জেলা প্রশাসককে অবগত করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা পেলে বিষয়টি অধিকতর তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইউএনও আরও বলেন, আমি যোগদানের আগেও এরকম ঘটনা আরো দু’টি ঘটেছে বলেও পরে জেনেছি। অভিযুক্ত ডিলার সুলতান আহম্মেদ বলেন, বেলকুচিতে কাবিখা প্রকল্পের কাজ চলছে। এসব প্রকল্পের চাল আমরা সিরাজগঞ্জ শহরের ডিলার সিদ্দিক মাস্টারের কাছে প্রায় বিক্রি করে থাকি। সোমবার রাতেও তার কাছে ২০ মেঃ টন কাবিখা প্রকল্পের চাল বিক্রি করেছি। সেটা রাজাপুর ইউনিয়নের দুঃস্থদের জন্য বরাদ্দকৃত ভিজিএফ চাল নয়। এ ব্যাপারে রাজাপুর ইউপি চেয়ারম্যান সনিয়া সবুর আকন্দ বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুয়ায়ী সোমবার আমার ইউনিয়নের ৩ হাজার ৫০ জন দুঃস্থের মাঝে সঠিকভাবেই বণ্টন করেছি। সরকারি চাল বিতরণে কোন প্রকার অনিয়ম হয়নি। এখন ডিলাররা কোথায় কি করবে, তার জন্য চেয়ারম্যানরা দায়ী নন। এর আগেও রাজাপুর ইউনিয়নে দুঃস্থদের জন্য বরাদ্দকৃত সরকারি চাল কয়েকবার কালোবাজারে বিক্রি হয়েছে। সদর থানা পুলিশ পৃথক দু’টি অভিযানে প্রায় ৪০ মেঃ টন চাল জব্দ করে। বেলকুচির আব্দুর রাজ্জাকসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সব ঘটনায় দায়ের করা দুটি মামলার একটি দুদক ও আরেকটি সদর থানা পুলিশ তদন্ত করছে।
    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বেলকুচি ২৮ মে, ২০১৯ ০৭:০৬ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 874 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    বেলকুচি অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    বিশ্বকাপ ক্রিকেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    10302051
    ২০ জুন, ২০১৯ ১০:৩১ পূর্বাহ্ন