তাড়াশে ব্রিজের মুখে নেট দিয়ে পানি প্রবাহে বাধা সৃষ্টি করে মাছ চাষ প্রকল্প !! ক্ষতিগ্রস্ত হবে হাজারো কৃষক ও জেলে পরিবার
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০৮:৩২ অপরাহ্ন


  

  • তাড়াশ/ অন্যান্য:

    তাড়াশে ব্রিজের মুখে নেট দিয়ে পানি প্রবাহে বাধা সৃষ্টি করে মাছ চাষ প্রকল্প !! ক্ষতিগ্রস্ত হবে হাজারো কৃষক ও জেলে পরিবার
    ২৫ জুন, ২০১৯ ০৯:০০ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত

    এম এ মাজিদঃ সিরাজগঞ্জের তাড়াশে ব্রিজের মুখে নেট দিয়ে পানি প্রবাহের খালের মুখ বন্ধ করে মাছ চাষ প্রকল্পের উদ্যোগ গ্রহন করায় শিক্ষাস্বাস্থ্য উন্নয়ন কার্যক্রম (শিসউক) নামে একটি জাতীয় পর্যায়ের বেসরকারি সংস্থার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছেন এলাকাবাসী। সোমবার সকালে উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়নের দেবীপুর আঞ্চলিক সড়কের একটি ব্রিজের সামনে দাঁড়িয়ে প্রকল্প বন্ধের দাবিতে তারা এ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। 

    এদিকে ওই কৃষি ঘাতি প্রকল্প বন্ধের  দাবিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইফ্ফাত জাহান বরাবর একটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন তারা। এলাকার ভুক্তভোগী গোলবার হোসেন, আসিফ আলী, জামাল উদ্দিন, মাসুদ রানা, আজিম উদ্দিন, মতিউর রহমান, শাহ আলম, আব্দুর রশিদ, আব্দুস সালাম, ইউসুব আলী, রাজ্জাক আলী, কাবিল উদ্দিন প্রমূখ বলেন, নওগাঁ ইউনিয়নের দেবীপুর মৌজার দেবিপুর ব্রিজ ও নলুয়া কান্দি ব্রিজের মুখে ইতোমধ্যে লোহার নেটিং করা হয়ে গেছে। হাটিকুমরুল-বনপাড়া মহাসড়কের ৬নং ব্রিজেও ইউক্যালিপটাস গাছের ছোট-ছোট কাঠের গুল পুঁতে নেটিং করার পায়তারা চলছে। ওই তিনিটি ব্রিজের মুখে নেটিং করে মাছ চাষ করা হলে বর্ষা মৌসুমে বন্যার পানি নিস্কাশনে বাধার সৃষ্টি হবে। ফলে দেবীপুর মৌজাসহ আশাপাশের কৃষকের কয়েক হাজার হেক্টর জমির রবিশষ্য আবাদ অনিশ্চিত হয়ে পড়বে। শুধু তাই নয়, স্থানীয় প্রান্তিক ৫ শতাধিক জেল পরিবার বর্ষাকালে চলনবিলের দেবীপুর মৌজা এলাকায় মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন। নেটিং করে মাছ চাষ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হলে জেলে পরিবারগুলোর বর্ষা মৌসুমে তিনবেলা খেয়ে পড়ে বেঁচে থাকা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়বে। মাছ চাষ করে কতিপয় প্রভাবশালী লাভবান হলেও বেশির ভাগ কৃষকই ক্ষতির মুখে পড়বেন।  
    শিক্ষাস্বাস্থ্য উন্নয়ন কার্যক্রম (শিসউক) এর কর্মসূচি পরিচালক মো. জিল্লুর রহমান বলেন, নেটিং পদ্ধতিতে মাছ চাষ করা হলে পানি প্রবাহের পথে কোন রকমের বাধার সৃষ্টি হবেনা। তাছাড়া বেশিরভাগ জমি মালিকদের মতামতের ভিত্তিতেই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। 
    তাড়াশ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাইফুল ইসলাম জানান, ব্রিজের মুখে নেটিং করে মাছ চাষ করলে নিশ্চিতভাবে বন্যার পানি নিস্কাশন বাধাগ্রস্থ হবে। ফলে খাদ্য উৎপাদন ব্যাপকহারে কমে যাবে। এবং রবি শস্য আবাদ অনিশ্চিত হয়ে পরবে।
    এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইফ্ফাত জাহান বলেন, জন দূর্ভোগের সৃষ্টি হয় এমন কোন প্রকল্পই বাস্তবায়ন করা যাবেনা। সরেজমিনে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

     

     

    নিউজরুম ২৫ জুন, ২০১৯ ০৯:০০ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 659 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    তাড়াশ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    11369751
    ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০৮:৩২ অপরাহ্ন