উল্লাপাড়ায় আশ্রয়ন প্রকল্প নির্মাণে লাঠিসোঠা নিয়ে বাঁধা গ্রামবাসীর
২৯ জানুয়ারী, ২০২০ ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন


  

  • উল্লাপাড়া/ অন্যান্য:

    উল্লাপাড়ায় আশ্রয়ন প্রকল্প নির্মাণে লাঠিসোঠা নিয়ে বাঁধা গ্রামবাসীর
    ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৫:২৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    রায়হান আলীঃ  সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার সলপ ইউনিয়নের নওকৈড় গ্রামে সরকারের আশ্রয়ন প্রকল্প নিমার্ণের প্রতিরোধে আজ মঙ্গলবার সকালে নওকৈড় গ্রামের নারী পুরুষেরা লাঠিসোঠা ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মাটি ভরাটের কাজে বাধা সৃষ্টি করে। তারা ঘটনাস্থলে প্রবেশ পথে গাছ কেটে ফেলে ও রাস্তা কেটে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এমনকি আগুন জ্বেলে রাস্তায় প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। এক পযার্য়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে মুখোমুখি হয় প্রতিবাদকারীরা। পরে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সেখানে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। 

    নওকৈর গ্রামের রেজাউল করিম মুন্সী, রফিকুল ইসলাম, হেকমত আলী ও রানী খাতুন গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, উপজেলা প্রশাসন তাদের গ্রামের মাঠে খাস জায়গায় আশ্রয়ন  প্রকল্প নিমার্ণের সিদ্ধান্ত দেয়। কিন্তু তাদের বরাদ্দকৃত ৪.২৭ একর জায়গার মধ্যে গ্রামবাসীর নিজস্ব মালিকানার জায়গা রয়েছে ১.৫৩ একর তিন ফসলী জমি। গ্রামবাসী তাদের এই নিজস্ব আবাদী জমিতে আশ্রয়ন প্রকল্প নিমার্ণ করতে অনেক দিন ধরেই বাঁধা দিয়ে আসছে। তারা যেকোন মূল্যে তাদের জায়গায় মাটি ভরাটের কাজ প্রতিরোধ করবে বলে জানান। 


    এ ব্যাপারে সলপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান প্রকৌশলী শওকাত ওসমান জানান, নওকৈড় গ্রামে প্রস্তাবিত আশ্রয়ন প্রকল্পে এলাকার হতদরিদ্র ছিন্নমূল ১থশ পরিবারকে পূণর্বাসন করা হবে। নওকৈড় গ্রামবাসীর জায়গার দাবি অযৌক্তিক।     

    এ ব্যাপারে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ আরিফুজ্জামানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, নওকৈড় গ্রামে সরকারি খাস জায়গার উপর আশ্রয়ন প্রকল্প নিমার্ণ করা হচ্ছে। এখানে যে জায়গাটুকু বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে তার পুরোটাই খাস। তিনি আরো জানান, নওকৈড় গ্রামবাসী তাদের নিজস্ব জায়গা হিসেবে যে জায়গা দাবি করছেন সেই জায়গা আশ্রয়ন প্রকল্প নিমার্ণের খাস জায়গার মধ্যে নেই। তাদের যদি এই জায়গার ভিতরে রেকর্ডীয় জমি থাকে এবং তারা যদি তাদের জমির যথাযথ কাগজপত্র উপস্থাপন করতে পারে তাহলে তাদের  সে জায়গা ফেরত দেওয়া হবে। 

    প্রসঙ্গতঃ উক্ত নওকৈড় গ্রামের মাঠে আশ্রয়ন প্রকল্প নিমার্ণের জন্য উপজেলা প্রশাসন ৪.২৭ একর খাস জমি বরাদ্দ দিয়েছে। প্রাথমিক ভাবে এই জায়গায় মাটি ভরাটের জন্য উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস থেকে ৪৭০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। মাটি ভরাটের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সলপ ইউনিয়ন পরিষদের উপর।

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,কাজিপুর ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৫:২৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 1068 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    উল্লাপাড়া অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    12632373
    ২৯ জানুয়ারী, ২০২০ ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন