রায়গঞ্জে কাভার্ড ভ্যানে ভ্রাম্যমান অবৈধ সিএনজি ফিলিং স্টেশন !! দূর্ঘটনার আশংকা
২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০৪:০৪ পূর্বাহ্ন


  

  • তাড়াশ/ অন্যান্য:

    রায়গঞ্জে কাভার্ড ভ্যানে ভ্রাম্যমান অবৈধ সিএনজি ফিলিং স্টেশন !! দূর্ঘটনার আশংকা
    ২২ জানুয়ারী, ২০২০ ১২:০০ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    এম এ মাজিদ  : সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার পৌর অটো স্ট্যান্ডে কাভার্ড ভ্যানে অবৈধভাবে ভ্রাম্যমাণ  সিএনজি স্টেশন বসিয়ে গ্যাস বিক্রি করা হচ্ছে। রায়গঞ্জ পৌর মেয়র আব্দুল্লাহ আল পাঠানের নেতৃত্বে এ অবৈধ সিএনজি স্টেশন পরিচালিত হচ্ছে মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে করে  যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন এলাকাবাসী।
    স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, মেয়রের ছোট ভাই মোমিন পাঠান ও ভাগ্নে আব্দুল ওদুদ মিলে  প্রভাব খাটিয়ে  নির্বিঘেœ এ ঝুঁকিপূর্ণ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।
    জানা যায়, একেকটি কাভার্ড ভ্যানে বড় বড় শতাধিক সিলিন্ডার যুক্ত করে গোপনে বিভিন্ন সিএনজি স্টেশন থেকে অবৈধভাবে গ্যাস মজুদ করে এনে, রায়গঞ্জ উপজেলা সদরের জন বসতিপূর্ণ পৌর অটো স্ট্যান্ডে স্টেশন বসিয়ে বিপদজ্জনকভাবে সিএনজি আটো রিকশা ও অন্যান্য অন্যান্য যানবাহনে গ্যাস বিক্রি করা হচ্ছে। 
    সূত্র জানায়, রায়গঞ্জ উপজেলা সদর থেকে ১৬ কিলোমিটার দুরে সিরাজগঞ্জ শহর ও ৩৬ কিলোমিটার দুরে বগুড়া থেকে সিএনজি গ্যাস আনতে হয়। এসব সিএনজি স্টেশনে যেতে দীর্ঘ মহাসড়ক পারি দিতে হয়। এসব মহাসড়কে সিএনজি চালিত অটো রিকশা চলাচল নিষিদ্ধ হওয়ায় পুলিশ মাঝে মধ্যেই আটক করলে, তাদের কে মোটা অংকের জরিমানা গুণতে হয়। তাছাড়া সময়ও নষ্ট হয় তিন থেকে চার ঘণ্টা। তাই বাধ্য হয়ে এ এলাকার শত শত যানবাহন এই ভ্রাম্যমাণ সিএনজি স্টেশন থেকে বেশি দামে হলেও  গ্যাস নিয়ে থাকেন।
    কিন্তু বিষ্ফোরক বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, কাভার্ড ভ্যানে সংরক্ষিত বিশাল আকারের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হলে জানমালের ব্যাপক ক্ষতির আশংকা রয়েছে। তারপরও প্রশাসনের বাধা ছাড়াই অবৈধ পন্থায় গ্যাস বিক্রি করে চলেছে চক্রটি। অবৈধ সিএনজি স্টেশন পরিচালনা নিয়ে রায়গঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো:আব্দুল্লাহ আল পাঠান কে মুঠোফোনে(১৭১১৪১০১৬৯) বারবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।
    তবে তার ভাই মোমিন পাঠান বলেন, আমরা নয় আটো স্ট্যান্ডের  ছেলেরা চালাচ্ছে গ্যাসের ব্যবসা। আমরা সহযোগিতা করছি মাত্র। তারপরই তিনি বিশেষ এক ব্যাক্তির সাথে যোগাযোগ করতে বলেন।
    এ প্রসঙ্গে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিস্ফোরক পরিদর্শক ড.মো:আসাদুল ইসলাম এপ্রতিবেদককে বলেন,এ ধরনের সিএনজি স্টেশন শুধু বেআইনীই নয়,মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণও। আমরা সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক কে চিঠি দিয়েছি স্টেশন টি দ্রুত বন্ধ করে দেয়ার জন্য। এছাড়া অবৈধভাবে কাভার্ড ভ্যানের সিলিন্ডিারে গ্যাস দেয়ার অভিযোগে বগুড়ার মঞ্জু সিএনজি স্টেশনের লাইসেন্স  ইতোমধ্যেই বাতিল করা হয়েছে।
    রায়গঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: শামিমুর রহমান বলেন,আমরা ইতোপূর্বে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে জরিমানা করে পৌর স্ট্যান্ডের অবৈধ সিএনজি স্টেশন বন্ধ করে দিয়েছিলাম। আবারও তা চালু করলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, তাড়াশ ২২ জানুয়ারী, ২০২০ ১২:০০ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 259 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    তাড়াশ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    12815632
    ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০৪:০৪ পূর্বাহ্ন