সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ সিরাজগঞ্জের সব খবর, সবার আগেঃ SirajganjKantho.com

www.SirajganjKantho.com

হলুদ সরিষা ফুলে ছেয়ে গেছে চলনবিলের দিগন্ত জোড়া মাঠ
নিউজরুম ০৬-১২-২০১৮ ০৪:০৪ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ প্রিন্ট সময়কাল Dec 12, 2018 07:29 PM

এম এ মাজিদ: হলুদ সরিষা ফুলে ছেয়ে গেছে চলনবিলের দিগন্ত জোড়া মাঠ। মাঠের পর মাঠ হলুদ সরিষা ফুলের অপরুপ সৌন্দর্য ফুটে উঠছে। বাতাসে সোভা পাচ্ছে সরিষা ফুলের সৌরভ। মৌমাছির গুঞ্জন ফুলে ফুলে। মৌচাষীদের চলছে মধু আহরণের পালা। হেমন্তের শিশির ঝরা সরিষা ফুলের পাঁপড়িতে কাক ডাকা সকালে রোদের ঝিলিক। মাঠে কৃষকের আমণ ধান কাটার মহোৎসব। ঘরে ঘরে চলছে গ্রাম বাংলা ঔতিহ্য নবান্নের উৎসব। চলনবিল এলাকার কৃষক মুজুর ব্যস্ত মহাব্যস্ত। শিশির ঝড়া সকালে সরিষা ক্ষেত মাড়িয়ে কাজের সন্ধানে কৃষকের চলা। সকালে মিষ্টি মধুর রোদে শীতের পিঠা খাওয়া।


চলনবিলে ব্যাপক সরিষা আবদে মৌচাষীদের মুখে হাসি ফুটেছে। মাঠে মাঠে নামিয়েছে মধু আহরণের ডালা সংগ্রহ করছে মধু। বিসিকসহ বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা মৌচাষীদের প্রশিক্ষন দিয়ে মধু আহরনে নামিয়েছে।সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, চলনবিলের সিরাজগঞ্জের তাড়াশ, রায়গঞ্জ, শাহজাদপুর ও উল্লাপাড়া। নাটোরের গুরদাসপুর, সিংড়া। এবং পাবনা জেলার চাটমোহর ও ভাঙ্গুড়া উপজেলার প্রায় কয়েক হাজার হেক্টর জমিতে দড়ি-৭, বারি-১৪ ও বারি-১৫ ইত্যাদি জাতের সরিষা চাষ করা হয়েছে। আর মাঠের পর মাঠ চাষ করা সরিষা ক্ষেত হাসছে ফুলের সৌরভে। এখুন পযর্ন্ত আবাদ ভালো হয়েছে। ভালো ফলন পাওয়ার প্রত্যাশায় মাঠ পানে তাকিয়ে আছে কৃষক। 


তাড়াশ উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এবছর তাড়াশ উপজেলা ৬হাজার ১শত হেক্টর জমিতে সরিষা আবাদ করা হয়েছে। লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৫হাজার হেক্টর। লক্ষমাত্রার চেয়ে ১হাজার ১শ হেক্টর জমিতে বেশি সরিষা আবাদ হয়েছে। এদিকে সরিষা ফুল হতে মধু আহরন করতে চলনবিলের বিভিন্ন মাঠের সরিষার জমিতে ২হাজার ৬০টি বক্্র বসানো হয়েছে। এথেকে মধু আহরনের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে ২০ মেঃটন।
এবিষয়ে তাড়াশ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, এবছর চলনবিলের মাঠে রেকর্ড পরিমান জমিতে সরিষা চাষ করা হয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে চাষীদের সার্বিক সহযোগীতা করা হচ্ছে। আশা করছি ভালো ফলন হবে। 

 



০৬-১২-২০১৮ ০৪:০৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত
http://sirajganjkantho.com/cnews/newsdetails/20181206160433.html
© সিরাজগঞ্জ কন্ঠ, ২০১৬     ||     A Flashraj IT Initiative