সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ সিরাজগঞ্জের সব খবর, সবার আগেঃ SirajganjKantho.com

www.SirajganjKantho.com

সলঙ্গায় ইরি-বোরো রোপনে ব্যস্ত কৃষক
নিউজরুম ১১-০২-২০১৯ ০৪:১৩ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ প্রিন্ট সময়কাল Feb 17, 2019 04:41 AM

সলঙ্গা  প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় ইরি-বোরো ধান রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকেরা। তাদের স্বপ্ন হচ্ছে রোপন করা ফসল ভালো হলে ঘরে তোলা। আর সেই স্বপ্নকে জমির বুকে রোপন করতে যেন মহোৎসব চলছে। অল্প কয়েক দিন ধরে রবি শষ্য সরিষা আর  আমন ধান ঘরে তুলে সলঙ্গা বাসীর প্রধান ফসল ইরি-বোরো চাষে নতুন স্বপ্ন নিয়ে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে। ভোর থেকে শুরু করে সন্ধ্যা পর্যন্ত মাঠের কাঁদা, পানিতে ভিজে ধানের চারা রোপনের কার্যক্রম চালাচ্ছেন কৃষকরা। বর্তমানে সলঙ্গা থানার মাঠ গুলো এখন কৃষকের পদভারে মুখরিত। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় শীতে এবার বীজ তলার তেমন ক্ষতি হয়নি। চলতি বোরো মৌসুমে সেচ কার্যক্রম যথাযথ রাখতে বিদ্যুৎ বিভাগও রয়েছে তৎপর। রায়গঞ্জ-ভুইয়াগাঁতী জোনাল অফিসের ডিজিএম আব্দুল কুদ্দুস জানান, ইরি-বোরো চাষে কৃষকরা যাতে সার্বক্ষনিক জমিতে পানি সেচ দিতে পারেন এ জন্য বিদ্যুৎ বিভাগ সজাগ রয়েছে। সংশ্লিষ্ট কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, সলঙ্গা থানার নলকা ইউনিয়নে ২৩৫০ হেক্টর, ঘুড়কা ইউনিয়নে  ২৩৯৫ হেক্টর, সলঙ্গা ইউনিয়নে ২৪৫০ হেক্টর, হাটিকুমরুল ইউনিয়নে ২৪৭০ হেক্টর, ধুবিল ইউনিয়নে ২৫৪০ হেক্টর ও রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নে ২২৯৫ হেক্টর জমি ইরি-বোরো চাষের লক্ষ্য মাত্রা ধার্য করা হয়েছে। উল্লাপাড়া উপজেলার হাটিকুমরুল ইউপির ৩নং ওয়ার্ডের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুস সাত্তার, রামকৃষ্ণপুর ইউপির উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ছরোয়ার হোসেন, সলঙ্গা ইউপির উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সোহেল আরমান জানান, কৃষকেরা যেন ইরি-বোরো চাষে কোন প্রকার সমস্যায় না পড়েন এ জন্য আমরা সার্বক্ষনিক মাঠে গিয়ে নজরদারী করছি। যেখানেই সমস্যা সেখানেই আমাদের উপস্থিতি, পরামর্শ আর সমস্যা সমাধানের দ্রুত পদক্ষেপ নিচ্ছি। উল্লাপাড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ খিজির হোসেন বলেন, বর্তমানে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সহ সংশ্লিষ্টরা কৃষকদের পরামর্শ দিতে মাঠে নেমেছেন। কৃষকরা যদি এ মৌসুমে আমাদের দেওয়া পরামর্শ মোতাবেক ইরি-বোরো চাষ করেন এবং আবহাওয়া অনুকুল ও প্রাকৃতিক কোন দুর্যোগ হানা না দেয় তাহলে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হবে বলে আশা করি। 



১১-০২-২০১৯ ০৪:১৩ অপরাহ্ন প্রকাশিত
http://sirajganjkantho.com/cnews/newsdetails/20190211161316.html
© সিরাজগঞ্জ কন্ঠ, ২০১৬     ||     A Flashraj IT Initiative