সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ সিরাজগঞ্জের সব খবর, সবার আগেঃ SirajganjKantho.com

www.SirajganjKantho.com

শ্রীবরদীতে বহিরাগত ২ যুবকের হাতে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার লাঞ্চিত
নিউজরুম ০৯-০৯-২০১৯ ০৯:১১ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ প্রিন্ট সময়কাল Feb 22, 2020 03:02 AM
শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধিঃ শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার আসাদুল্লাহ কে লাঞ্চিত করেছে বহিরাগত দুই যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার বিকেলে পৌর শহরের থানার পার্শ্বে হাইস্কুলের পিছনের সড়কে। এ ঘটনায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত কর্মকর্তা কর্মচারীদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। লাঞ্চনার শিকার উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার আসাদুল্লাহ সোমবার সন্ধ্যায় জানায়, আজ দুপুরে হাসপাতালে রোগী দেখার সময় মোবাইল ফোনে তাকে সাতানী শ্রীবরদীর শান্তিবাগ এলাকার বাসিন্দা লেডিস টেইলার্সের মালিক লুৎফর রহমানের ছেলে হাসান নামের এক যুবক তার অসুস্থ্য দাদীকে দেখতে তার বাসায় যেতে বলে। কিন্তু সরকারী ডিউটি থাকায় এবং হাসপাতালে প্রচন্ড রোগীর ভিড় থাকায় আমি যেতে অপরাগতা প্রকাশ করি এবং রোগী হাসপাতালের কাছাকাছি থাকায় রোগীকে হাসপাতালে আনতে বলি। ডিউটি শেষে দুপুরে শেরপুরে যাওয়ার পথে হাইস্কুলের সামনে আমার মোটর সাইকেলের গতি রোধ করে হাসান ও শাহিন নামের দুই যুবক। পরে আমাকে গাড়ী থেকে নামিয়ে হাইস্কুলের পিছনের সড়কে নিয়ে গিয়ে এলোপাথারীভাবে কিল, ঘুষি ও লাথি মেরে লাঞ্চিত করে। ঘটনাটি আমি আমার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। এ বিষয়ে আমি থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করব। এ ব্যাপারে মুঠোফোনে শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, আমি ছুটিতে রয়েছি। বিষয়টি আমাকে মোবাইল ফোনে জানিয়েছে। আসাদকে নাকি দুই বহিরাগত যুবক লাঞ্চিত করেছে। শ্রীবরদী থানার ওসি’র দায়িত্বে থাকা পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত বন্দে আলী মিয়া বলেন, মৌখিক খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এ বিষয়ে কেউ কোন লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শ্রীবরদী থানার ওসি রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। পুলিশও পাঠিয়েছি। তাদের কাছে অভিযোগ চাওয়া হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

০৯-০৯-২০১৯ ০৯:১১ অপরাহ্ন প্রকাশিত
http://sirajganjkantho.com/cnews/newsdetails/20190909211106.html
© সিরাজগঞ্জ কন্ঠ, ২০১৬     ||     A Flashraj IT Initiative