যৌতুক লোভী স্বামীর ভয়ে শিশু সন্তান সহ পালিয়ে বেড়াচ্ছে হাজেরা
১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৩:১১ পূর্বাহ্ন


  

  • চৌহালী/এনায়েতপুর/ অন্যান্য:

    যৌতুক লোভী স্বামীর ভয়ে শিশু সন্তান সহ পালিয়ে বেড়াচ্ছে হাজেরা
    ১০ জুলাই, ২০১৯ ০১:৪৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    চৌহালী প্রতিনিধিঃ যৌতুক লোভী স্বামীর ভয়ে শিশু সন্তান সহ পালিয়ে বেড়াচ্ছে নির্যাতীতা হাজেরা খাতুন (২০) নামে এক অসহায় গৃহবধূ। বিয়ের পর থেকে একের পর এক দাবী করা টাকা দিনমজুর পিতার কাছ থেকে এনে দিতে না পেরে পাষন্ড স্বামী সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর থানার উত্তর নওহাটা গ্রামের আব্দুল কাদেরের মার-ধরের শিকার হয়ে সে এখন আশ্রয় নিয়েছে ৮ কিলোমিটার দুরে এনায়েতপুরের এক নিকট আত্বীয়ের বাড়িতে। বিষয়টি নিয়ে এখন এলাকা জুড়ে সবার মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। দাবী উঠেছে ঐ পাষন্ড স্বামীর দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির।

     

    জানা যায়, এনায়েতপুর থানার দুর্গোম চর স্থল ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামের দিন মজুর কৃষি শ্রমিক বৃদ্ধ জহুরুল ইসলামের ৭ ছেলে-মেয়ের মধ্যে মেঝো মেয়ে হাজেরা খাতুনের গত দু বছর আগে উত্তর নওহাটা চরের শাম মন্ডলের ছেলে কৃষক আব্দুল কাদেরের সাথে বিয়ে হয়। তখন চেয়ে চিন্তে দাবী করা প্রায় দেড় লাখ টাকার যৌতুক দিয়ে অসহায় দিন মজুর পিতা বিয়ে দেন তার সাথে। গত ১০ মাস আগে তাদের পরিবারে ফুটফুটে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়।

     

    এরপর থেকেই কারনে-অকারনে তাকে নানা ভাবে নির্যাতন করে আসছে স্বামী কাদের। গত ২ সপ্তাহ আগে মালয়শিয়া যাবে এই মর্মে শ্বশুরের কাছে ২ লাখ টাকা দাবী করে। তখন হতদরিদ্র জহুরুল ইসলাম অপারগতা প্রকাশ করলে ক্ষিপ্ত হয়ে বাড়ি চলে যায়। হঠাৎ গত রোববার সকালে স্ত্রী সন্তান ও কাদের নিজে শ্বশুর বাড়ি এসে স্ত্রী চাপ সৃষ্টি করে শ্বশুরকে বলায় দাবী কৃত ২ লাখ টাকা না দিলে তাকে আর বাড়ি নেবে না। তখনও পরিবারের পক্ষ হতে অপারগতা প্রকাশ করলে সন্ত্রাসী পাষন্ড স্বামী আব্দুল কাদের সকলের সামনেই তার স্ত্রী হাজেরা ও শিশু সন্তান ইসমাইলকে বেদম মারধর করে। এসময় বাড়ির পাশের তাদের বৃদ্ধ নানা-নানী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এগিয়ে আসলে তাদেরও বেদম মারধর করে চলে যায়। তখন সে হুমকি দিয়ে বলে ২ লাখ টাকা না দিলে তোদের কাউকে বাড়িতে থাকতে দেবনা। আবার লোকজন নিয়ে এসে তোদের সবাইকে তুলে নিয়ে যাব। 


    এরপর থেকেই সন্ত্রাসী যৌতুক লোভী ঐ স্বামীর ভয়ে সে এনায়েতপুরে শিশু সন্তান নিয়ে নিকট আত্বীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে। হাজেরা খাতুন অভিযোগ করে জানান, আমি এখন তার ভয়ে অসহায় হয়ে পড়েছি। কতবার যে সে আমাকে নির্যাতন করেছে তা বলে শেষ করা যাবেনা। ২ লাখ টাকা আমার পিতার কাছ থেকে না এনে দিলে আমার সন্তানকেও মেরে ফেলতে পারে তাই আমরা বাঁচতে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। সে আরো জানায়, ওরা প্রভাবশালী হওয়ায় আমার বাবা-মা সহ পরিবারের সবাই এখত আতংক গ্রস্থ। শুধু আমার স্বামী নয় শ্বশুর-শ্বাশুরীও বলে দিয়েছে ২ লাখ টাকা ছাড়া বাড়িতে না আসতে। এখন কিভাবে আমি এতো টাকা পাবো। আপনারা আমাকে ও আমার পরিবারকে বাঁচান। এদিকে আব্দুল কাদেরের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি। 
    বিষয়টি নিয়ে এনায়েতপুর থানার ওসি তদন্ত মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, ঘটনাটি হৃদয় বিদারক। মেয়ে পক্ষের কেউ এসে অভিযোগ করলে আমরা যথাযথ ব্যবস্থা নেব। 

    সিনিয়র স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, চৌহালী ১০ জুলাই, ২০১৯ ০১:৪৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 455 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    চৌহালী/এনায়েতপুর অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    12293137
    ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৩:১১ পূর্বাহ্ন