চামড়া নিয়ে চামড়াবাজি বগুড়ার শিবগঞ্জে কোরবানী পশুর চামড়ার চেয়ে সিগারেটের মূল্য বেশি
২৫ আগস্ট, ২০১৯ ০৪:২৮ অপরাহ্ন


  

  • উত্তরবঙ্গ/ অন্যান্য:

    চামড়া নিয়ে চামড়াবাজি বগুড়ার শিবগঞ্জে কোরবানী পশুর চামড়ার চেয়ে সিগারেটের মূল্য বেশি
    ১৩ আগস্ট, ২০১৯ ০২:০৮ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    (শিবগঞ্জ) বগুড়া প্রতিনিধিঃ সারা দেশের ন্যায় বগুড়ার শিবগঞ্জেও কোরবানী পশুর চামড়ার দাম এক প্যাকেট ব্যানসন সিগারেটের চেয়েও কম। প্রশাসনের নেই কোন মনিটরিং। সাধারণ মানুষ বলছে, ইয়াতিমদের হক মেরে দিয়েছে মধ্যস্বত্ত্বভোগী চামড়া ব্যাসায়ীরা। 

    ঈদের দিন উপজেলার আলীগ্রাম, ভাইয়েরপুকুর, বুড়িগঞ্জ, মোকামতলা, রহবল, এনায়েতপুর, অভিরামপুর, গুজিয়া, ময়দানহাট্টা, কিচক, মহাস্থান ও শিবগঞ্জ পৌর এলাকা ঘুড়ে দেখা যায়, পানির দরে বিক্রি হয়েছে কোরবানী পশুর চামড়া। সরকারের নির্ধারিত মূল্য তো দূরের কথা এর আশেপাশের মূল্যও পাচ্ছেন না বিক্রেতারা। অনেকেই চামড়া বিক্রি করতে না পেরে স্থানীয় মসজিদ-মাদ্রাসায় দান করে দিচ্ছেন।

    লক্ষাধিক টাকা দামের গরুর চামড়া বিক্রি হয়েছে মাত্র দুইশ থেকে পাঁচশ টাকায়। ছোট গরুর চামড়ার কেউ সহজে দামই করতে চায়নি। আর ছাগলের চামড়া কেনা হচ্ছে ২০ থেকে ৫০ টাকায়। কোরবানির পশুর চামড়ার দাম কমের বিষয়ে আলীগ্রামের বাসিন্দা রানা জানায়, আমরা ৭ ভাগে ৬৭ হাজার হাজার টাকা দিয়ে গরু কুরবানী দিয়েছিলাম চামড়া বিক্রি করেছি মাত্র ৫০০ টাকা। একই এলাকার শাপলা, কালাম, আনারুল বলেন, আমরা ছাগল কোরবানী দিয়েছিলাম তার চামড়া বিক্রি করেছি মাত্র ২০টাকা করে। এনায়েতপুর গ্রামের বাসিন্দা সাংবাদিক জিএম মিজান এ প্রতিবেদককে বলেন, আমাদের গ্রামের ৯৬ হাজার টাকার কোরবানীর গরুর চামড়া বিক্রি হয়েছে মাত্র চারশত টাকা।

     

    একই অবস্থা সারা উপজেলায় পরিলক্ষিত হয়েছে। চামড়া ব্যবসায়ী সুলতান ও একাব্বর বলেন, এবার চামড়ার বাজার নেই বললেই চলে, আমরা বড় গরুর চামড়া ৩০০-৫০০ টাকা ও মাঝাড়ি গরুর চামড়া ১০০-২০০টাকা ও ছাগলের চামড়া ২০-৫০টাকায় ক্রয় করেছি। সরকারের নির্ধারণ দাম অনুযায়ী, এবার গরুর কাঁচা চামড়ার দাম ঢাকায় প্রতি বর্গফুট ৪৫ থেকে ৫০ টাকা এবং ঢাকার বাইরে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা। সারাদেশে খাসির চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হয়েছে প্রতি বর্গফুট ১৮ থেকে ২০ টাকা এবং বকরির চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হয় প্রতি বর্গফুট ১৩ থেকে ১৫ টাকা।

     

    গুজিয়া হাফেজি মাদ্রাসার মুহতামিম মাসুম আহমেদ বলেন, ইয়াতিম ও মিসকিনদের হক এবারও চলে গেলো ব্যবসায়ী ও মধ্যেস্বত্ত্বভোগীদের পকেটে। শেষ জামানার আলামত চলে এসেছি মনে হয়। ইয়াতিম ও মিসকিনদের অধিকার নিয়ে বিত্তবানরাও চিনিমিনি খেলছে। এবিষয়ে জানতে চাইলে শিবগঞ্জের বিভিন্ন বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন, আমাদের কিছু করার নেই। আমরা এবার কোরবানীর চামড়া কেনা বেঁচায় দাম দেখে হতাশ হয়েছি। এত কমে কোন দিনও চামড়া কিনিনাই। তারা আরও বলেন, আমরা সঠিক দামে বগুড়া এবং ঢাকায় চামড়া বিক্রি করতে পারবোকিনা জানিনা। এবিষয়ে উপজেলার কয়েকজন কর্তা ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করা হলে তার এব্যাপারে কিছু বলতে রাজি হননি। তবে সচেতন ও বিবেকবান একটি মহল বলেছেন, সিগারেটের দাম চামড়ার দামের তুলনায় বেশি। সরকারের উদাসিনতাই এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। জনগন অনেক ক্ষেত্রে ব্যবসায়ীদের কাছে জিম্মি হয়ে পরেছে।

    নিউজরুম ১৩ আগস্ট, ২০১৯ ০২:০৮ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 165 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    Expo
    Slide background EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech EduTech
    Slide background SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech SaleTech EduTech
    উত্তরবঙ্গ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট

    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    11098467
    ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ০৪:২৮ অপরাহ্ন