সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ সিরাজগঞ্জের সব খবর, সবার আগেঃ SirajganjKantho.com

www.SirajganjKantho.com

ছাগলের দাম ২লক্ষ টাকা!
নিউজরুম ২৯-০৭-২০১৯ ০৭:০১ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ প্রিন্ট সময়কাল Sep 16, 2019 03:18 PM
খাইরুল ইসলামঃ কোরবানি ঈদের আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। আর এবারের ঈদ বাজারে  ফরিদুল ইসলাম তার ৪টি  ছাগলের দাম চাইবেন (হাঁকা) হয়েছে ২লাক্ষ টাকা। তার দীর্ঘ দিনের আশা চারটি ছাঘল ২লাক্ষ টাকা বিক্রি করবেন।
 
মাস দেড়েক আগে স্থানীয় এক ব্যাপারী,জার্সি,পাকিস্তানি,কাশমেরি,জাতের এই ছাগল চারটি  ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা দাম বলে গেছেন। কিন্তু সামনে কোরবানি ঈদে দাম বেশি পাবেন বলে তা বিক্রি করেননি ফরিদুল।
 
বিদেশ থেকে দেশে এসে ছাগল পালন শুরু করেছে ফরিদুল সিরাজগঞ্জে কামারখন্দ উপজেলার রায়দৌলতপুর ইউনিয়নের বাড়াকান্দি গ্রামের বাসিন্দা। তার বাবার নাম বাহাদুর মন্ডল। 
 
ফরিদুল জানান,  মালয়েশিয়া থাকেছি ৫বছর।  বিদেশ থেকে দেশে এসে বন্ধু শাকিল ও আমি প্রথমে ৪টি বড় ছাঘল(পাটি) ও ১টি পাঠা ছাঘল ৩৬শতাংশ জমি নিয়ে ২০ হাজার টাকা দিয়ে ছাঘল কিনে খামার শুরু করি।  এখন মোট ৩০টি ছাগল হয়েছে।  তার মধ্যে ৪টি  ছাগল বিক্রি করবো। বর্তমানে বাজার দর অনুযায়ী ৪টি ছাগল ২লক্ষ টাকা বিক্রি করবো যার ওজন প্রায় ৪০ কেজি । ‘ধানের বিচলির (খড়) সঙ্গে খৈল ও ভুষি মিশিয়ে এবং গাছের পাতা খাইয়ে ছাগলটি এতো বড় করেছি।
 
ফরিদুল আরও বলেন, ‘কিছুদিন আগে এক ব্যাপারী আমার ছাগলটি১লক্ষ ৬০ হাজার টাকা দিয়ে কিনতে চেয়েছিল। কিন্তু আমি তা বিক্রি করিনি। এবারের ঈদে ছাগলটি বিক্রি করবো। সেই ক্ষেত্রে ২লক্ষ থেকে ২লক্ষ ২০ হাজার টাকা দাম চাইবো।’
 
 স্থানীয় বাজারে কাঙ্ক্ষিত দাম না হলে ছাগল বিক্রয় করবো না। এছাড়া এই ছাগলগুলো বিক্রি করে খামার বড় বানানোর  পাশাপাশি গরুর খামার দেওয়ার চিন্তা করছি।
 
কামারখন্দ উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা.মোঃ আব্দুল হাই জানান, ফরিদুলের ছাগল পালনের বিষয়টি জানি আর ঘাস,ভুষি, গাছের পাতা খাওয়ায় সে ছাগল পালন করে মোটাতাজা করেছে এছাড়া ছাঘলও গরু খামারিরাও কোন ক্ষতি কর জিনিস যাতে না খাওয়ায় সে দিকেও খেয়াল রাখছি।
 
 উপজেলায় ছাগল খামারী খুবই কম। মোট ছাগল আছে প্রায় ১৪হাজার।  বন্যার কারণে দামের কোন প্রভাব পরার কথা না।


২৯-০৭-২০১৯ ০৭:০১ অপরাহ্ন প্রকাশিত
http://sirajganjkantho.com/cnews/newsdetails/20190729190145.html
© সিরাজগঞ্জ কন্ঠ, ২০১৬     ||     A Flashraj IT Initiative