সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ সিরাজগঞ্জের সব খবর, সবার আগেঃ SirajganjKantho.com

www.SirajganjKantho.com

পানের পিক ফেলানো ঘটনায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৭, ভাঙচুর-লুটপাট
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বেলকুচি ১৯-০৯-২০১৯ ০৭:২১ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ প্রিন্ট সময়কাল Nov 14, 2019 01:43 PM
জহুরুল ইসলাম: সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর থানার খামারগ্রামে পানের পিক ফেলানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’ক্ষের সংঘর্ষে ইউপি সদস্য ও মহিলা সহ কমপক্ষে ১৭ জন আহত হয়েছে। এসময় ৫-৬ টি দোকান ও বসত বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। গুরুতর আহত ৭ জনকে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে এ এঘটনা ঘটে। এঘটনায় এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত ৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে সদিয়া চাঁদপুর ইউনিয়নের বেতিল বাজারে খাবার হোটেলের সামনে পানের পিক ফেলানোকে কেন্দ্র করে বেতিল ও চাঁদপুর চরের দুই যুবকের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এই ঘটনা স্থানীয় ভাবে মিমাংসার জন্য বৃহস্পতিবার সকালে সদিয়া চাঁদপুর ইউপি প্রাঙ্গনে একটি শালিসি বৈঠকের প্রস্তুতি চলছিল। এসময় দু’পক্ষের প্রায় আড়াই হাজার লোকজন জমায়েত হয়। পরে দুপুর ১২টার দিকে হঠাৎ করে বেতিল ও চাঁদপুর চরের লোকের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এসময় বেতিল গ্রামের তাঁত শ্রমিক আসাদ উদ্দিন (২৪), গৃহীনি ফিরোজা খাতুন (২৯), ইউপি সদস্য আবদুর রাজ্জাক (৫২) সহ বেশ কয়েক জন আহত হয়। এছাড়া অপর পক্ষ চাঁদপুরচরের কৃষক শুকুর আলী (৫২), রফিকুল ইসলাম (২৩) ও ইউপি সদস্য রওশন আলী সহ উভয় পক্ষের অন্তত ১৭ জন আহত হয়েছে এদের মধ্যে ৭ জনকে বিভিন্ন হাসপতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এবিষয়ে সদিয়া চাঁদপুর ই্উনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মনিরুজ্জামান ও স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাক অভিযোগ করে জানান, চাঁদপুর চরের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বেতিল বাজারের বেশ কয়েকটি দোকান ভাঙচুর ও বসত বাড়িতে হামলা চালিয়ে প্রায় ৩০ লাখ টাকার মালামাল লুটপাট করেছে। এছাড়া বহু লোকজনকে মারপিট করেছে। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে চাঁদপুর চরের বাসিন্দা ও থানা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক হাফিজুর রহমান পাল্টা অভিযোগ করে জানান, চরের লোকজন বরাবরই অসহায়। চরবাসিকে বেতিলের লোকজন ভেবে হামলা করে ৭-৮ জনকে আহত করেছে। তবে সদিয়া চাঁদপুর ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম সিরাজ জানান, তুচ্ছ ঘটনাটি মিমাংসার জন্য স্থানীয় মুরুব্বিদের নিয়ে বসেছিলাম। কিন্তু অতিউৎসাহিদের কারনে তুচ্ছ ঘটনা আরও বড় হয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। চেষ্টা করেছি দুপক্ষকে নিভৃত করার জন্য সেটা সম্ভব হয়নি। এবিষয়ে এনায়েতপুর থানার ওসি তদন্ত রাকিবুল হুদা সন্ধ্যা ৬টার দিকে জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। থানায় মামলা হতে পারে, মামলা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

১৯-০৯-২০১৯ ০৭:২১ অপরাহ্ন প্রকাশিত
http://sirajganjkantho.com/cnews/newsdetails/20190919192103.html
© সিরাজগঞ্জ কন্ঠ, ২০১৬     ||     A Flashraj IT Initiative